শিরোনাম :
সাধারণ মানুষ সমাবেশ প্রত্যাখান করেছে, রাসিক মেয়র লিটন রাজশাহী নগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির গণসমাবেশ শুরু কাজ হল না বিষেও! আসামির মৃত্যু নিশ্চিত করতে ভয়ঙ্কর পন্থা নিলেন জেল কর্তৃপক্ষ সঙ্গ পেতে মহিলাকে নিয়ে কলকাতার হোটেলে, প্রতিশ্রুতি মতো টাকা না দেওয়ায় ধৃত ৩ বাংলাদেশি প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে এখন লজ্জায় মুখ দেখাতে পারছেন না স্পেনের কোচ, কেন? বদলের ব্রাজিলে নজিরের মুখে দাঁড়িয়ে আলভেস, পেলেকে শুভেচ্ছা জানিয়ে নামছে সেলেকাওরা বিশ্বকাপে নেমারের খেলার সম্ভাবনা নিয়ে এ বার মুখ খুললেন তাঁর বাবা রাজশাহীতে আনোয়ার হোসেন উজ্জলের নেতৃত্বে হাজার হাজার মানুষের মিছিল অনুষ্ঠিত শীত উপেক্ষা করে খোলা মাঠে রাত কাটালো বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে যেতে পথে পথে বাধা
দোকান পান সিগারেটের-মূল ব্যবসা ফেন্সিডিল : অতপর গ্রেফতার

দোকান পান সিগারেটের-মূল ব্যবসা ফেন্সিডিল : অতপর গ্রেফতার

ফাইল ছবি

নিজেস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী নগরীর শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বড় গেট রয়েছে সেটি কাজলার মোড়।

সেই মোড়ে বসে পান সিগারেটের ব্যবসার নামে শুধু বিক্রি করা হতো ফেন্সিডিল। তার সকল কাস্টমার হচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক এবং কর্মকর্তা কর্মচারী।

শুধু মোবাইল ফোনে অর্ডার নিয়ে নিদৃষ্ট স্থানে পৌছে দেওয়ার কাজও করতো মুস্তাক।

তিনি হচ্ছেন রাজশাহী নগরীর মতিহার থানাধীন ধরমপুর এলাকার মৃত নওশাদ আলীর ছেলে ও কাজলা মোড়ের অভি পান ষ্টোরের প্রোপাইটর মুস্তাক।

আজ মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাবির কাজলা গেটে কাষ্টমার সেজে আসা পুলিশের হাতে ফেন্সিডিল বিক্রি করার সময় তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে মালোপাড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নাসির ও সঙ্গীয় ফোর্স।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এসআই নাসির বলেন, গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ী মুস্তাক পান সিগারেট ব্যবসার আড়ালে দৃর্ঘদিন যাবত মাদক বিক্রি করে আসছিলো এখন তথ্য আমি পেয়েছিলাম। এরপর মুস্তাকের মোবাইল ফোনের নাম্বার সংগ্রহ করে তার মোবাইল ফোনে ফেন্সিডিলের অর্ডার দিই। সে অনুযায়ী মুস্তাক আমাকে রাবি গেট সংলগ্ন কাজলার মোড়ের মাংশ পট্টিতে ডেকে এনে ফেন্সিডিল দিচ্ছিলো। এসময় তাকে দেড় বোতল ফেন্সিডিলসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক স্থানীয়রা বলেন, মুস্তাক এক কৌশলি মাদক ব্যবসায়ী। সে গত অনুমানিক ২৫ থেকে ৩০ বছর যাবত এই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকলেও এই প্রথম সে ফেন্সিডিলসহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হলো।

তাছাড়া মুস্তাক স্থানীয়দের নিকট ফেন্সিডিল বিক্রি কখনই করতো না। তার খদ্দের মূলত রাবি ও অন্যান্য প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আর কর্মচারীরা। সে ফেন্সিডিলের অর্ডার নেয় মোবাইল ফোনে এবং নিজেই তা পৌঁছে দেয়।

মাদক বহনকাজে মুস্তাক সাধারনত কোন মাধ্যম ব্যবহার করেনা। আর এ কারনেই সে এতদিন ধরা ছোয়ার বাইরে ছিলো বলে মন্তব্য করেন স্থানীয়রা।

মতিহার বার্তা ডট কম –  ২৬  ফেব্রুয়ারী ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *