শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ১০লাখ টাকার হেরোইন-সহ ৩জন মাদক কারবারী গ্রেফতার নগরীর তালাইমারীতে গাঁজা কারকারী মল্লিক গ্রেফতার রাজশাহীতে প্রস্তাবিত বঙ্গবন্ধু রিভার সিটি নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রুয়েটকে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রুপান্তর করতে হলে সকল ক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা জরুরী চিপস্ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ চেষ্টা: আসামি নাইম গ্রেফতার এইচএসসি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে আরএমপি’র নোটিশ জারি তানোরে ক্লুলেস হত্যা মামলার পলাতক আসামি ইকবাল গ্রেফতার কৃষিতে বির্পযয়ের আশঙ্কা তানোরে চোরাপথে আশা মানহীন সারে বাজার সয়লাব বাঘায় বাবুল হত্যা মামলায় চেয়ারম্যানসহ ৭ জনকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ সিংড়ায় ক্যান্সারে আক্রান্ত ২২ ব্যক্তির মাঝে চেক বিতরণ
রাজশাহীতে ছেলের স্ত্রীর অত্যাচার সইতে না পেরে থানায় গিয়ে বিষ চাইলেন মা

রাজশাহীতে ছেলের স্ত্রীর অত্যাচার সইতে না পেরে থানায় গিয়ে বিষ চাইলেন মা

রাজশাহীতে ছেলের স্ত্রীর অত্যাচার সইতে না পেরে থানায় গিয়ে বিষ চাইলেন মা
রাজশাহীতে ছেলের স্ত্রীর অত্যাচার সইতে না পেরে থানায় গিয়ে বিষ চাইলেন মা

স্টাফ রিপোর্টার: স্বামীর রেখে যাওয়া সম্পত্তি ছেলেকে লিখে দেয়ার পর থেকেই ছেলে ওয়াকিল আহম্মদ উকিল ও তার স্ত্রী শ্যামলীর অত্যাচার সয়তে হচ্ছে এক অসহায় মাকে।

নিরুপায় হয়ে সেই মা আজ দারে দারে চেয়ে খাচ্ছেন। শুধু তাইনা খেতে দেয়া হয় না বৃদ্ধা মাকে, কিছু হলেই বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার চেস্টা করে তারা। এবাদেও ছেলের স্ত্রী শ্যামলী তার নিজের ভাই ও বোনদের ডেকে গালিগালাজসহ চুলের মুঠি ধরে মারপিট করার অভিযোগ রয়েছে স্থানীয়দের মুখে।

সম্পৃতি সময় গতকাল (৩০ নভেম্বর) সোমবার সকালে শ্যামলীর ভাই বাপ্পি, গামাসহ ছোট বোন নুরমলি ও ইতি মিলে বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার চেস্টা করে তারা। আর এ সকল নেপত্থে রয়েছে ছেলে ওয়াকিল।

এঘটনায় বৃদ্ধা মা শুফিয়া খাতুন  চন্দ্রিমা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। শুফিয়া খাতুন (৬৫) শিরোইল কলোনী এলাকার মৃত শফিউদ্দিনের স্ত্রী।

ভুক্তভোগী শুফিয়া খাতুন জানান, আমার দুই ছেলে এক মেয়ে, মেয়ে থাকে সিলেটে। বড় ছেলে কামাল হোসেন একজন দিনমজুর। মেজো ছেলে ওয়াকিল সে মাংসের ব্যবসা করে পাশাপাশি একজন মাদকসেবী।

বিয়ে করে দুই ছেলের মা শ্যামলীকে, বিয়ের পর থেকে শ্যামলীর আচার আচারনে পরিবর্তন দেখা দেয়। এছাড়া আমি অসুস্থ শরীর নিয়ে খুবএকটা বাড়ি থেকে বের হতে পারিনা। ছেলে ও তার স্ত্রী আমাকে খাবারতো দুরের কথা বৌমা তার ভাই বোনদের ডেকে এনে আমার ওপর চালায় নির্যাতন।

ওয়াকিলকে জমি রেজিষ্ট্রী দেয়ার সময় ছেলে ও তার স্ত্রী শ্যামলীর সাথে আমার ১০০ টাকার তিনটি স্ট্যাম্পে চুক্তি হয়। চুক্তিনামায় বলা আছে আমি যতদিন জীবিত থাকবো, ছেলে হিসাবে আমার ভোরণ পোষণ সে  চালাইবে, এবং আমার দানকৃত সম্পত্তির ওপর একটি ঘর আমার ব্যবহারের জন্য ভোগদখল করিব।

ইহা সর্তেও আমার দানকৃত সম্পত্তি, পরের কাছে বিক্রি করে আমাকে ঘর থেকে বের করেদিবে বলে তার স্ত্রী শ্যামলী ও তার ভাই-বোন মিলে আমার ঘড় থেকে বের করার চেষ্টা করছে।

আজ সেই ছেলে ও তার স্ত্রী শ্যামলী আমাকে কথায় কথায় মারপিট করে, খেতে দেয় না, কিছু হলেই বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়, আমার আর বাঁচার কোনও ইচ্ছা নেই, আপনারা আমাকে একটু বিষ কিনে দেন।’ এভাবেই বিলাপ করছিলেন অসুস্থ শুফিয়া খাতুন।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, শ্যামলী একজন দুর্ধর্ষ সুদ ব্যবসায়ী, সুদের টাকা নিয়ে প্রায় মানুষের সাথে ঝগড়া বিবাদ করে। এছাড়া তার স্বামীকে রেখে দিনের পর দিন রাতেরপর রাত হিলি বর্ডারে চোরায় পথে ইন্ডিয়ান মালামাল নিয়ে রাজশাহী আসত। এবাদেও আইপিএলসহ টিটুয়েন্টি জুয়া খেলার শখ তার আগে থেকেই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ছেলে বলেন, আমি শ্যমলীর কাছে ৭০ হাজার টাকা পাবো। এ টাকা সে আইপিএল জুয়াতে হেরেছে। টাকা চাইতে গেলে আমাকে উল্টা গালিগালাজসহ হাসুয়া নিয়ে তারে।

মঙ্গলবার (০১ ডিসেম্বর) রাতে চন্দ্রিমা থানায় গিয়ে ছেলের স্ত্রী শ্যামলী, শ্যালক বাপ্পি, সালিকা নুরমলি ও ইতির বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। ছেলের স্ত্রীর নির্যাতন সইতে না পেরে তিনি থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেছেন এই মা। বিলাপ করতে করতে থানায় উপস্থিত হন এ বিধবা নারী। এরপর থানায় গিয়ে পুলিশের কাছে ছেলের নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে বিষ চেয়েছেন এ হতভাগা মা।

এ সময় উপস্থিত লোকজনকে তিনি বলেন, ‘আপনারা আমাকে একটু বিষ কিনে দেন। আমি আর ঘরে ফিরতে চাই না। বাড়িতে গেলে ছেলের স্ত্রী যদি জানতে পারে যে- তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছি, তাহলে আমাকে আর জ্যান্ত রাখবে না।’

এ ব্যাপারে চন্দ্রিমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুম মনির জানান, শুফিয়া খাতুনের কাছ থেকে তার ছেলের স্ত্রীসহ তার ভাই-বোনদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মতিহার বার্তা ডট কম: ০১ ডিসেম্বর ২০২০

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply