শিরোনাম :
সাধারণ মানুষ সমাবেশ প্রত্যাখান করেছে, রাসিক মেয়র লিটন রাজশাহী নগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির গণসমাবেশ শুরু কাজ হল না বিষেও! আসামির মৃত্যু নিশ্চিত করতে ভয়ঙ্কর পন্থা নিলেন জেল কর্তৃপক্ষ সঙ্গ পেতে মহিলাকে নিয়ে কলকাতার হোটেলে, প্রতিশ্রুতি মতো টাকা না দেওয়ায় ধৃত ৩ বাংলাদেশি প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে এখন লজ্জায় মুখ দেখাতে পারছেন না স্পেনের কোচ, কেন? বদলের ব্রাজিলে নজিরের মুখে দাঁড়িয়ে আলভেস, পেলেকে শুভেচ্ছা জানিয়ে নামছে সেলেকাওরা বিশ্বকাপে নেমারের খেলার সম্ভাবনা নিয়ে এ বার মুখ খুললেন তাঁর বাবা রাজশাহীতে আনোয়ার হোসেন উজ্জলের নেতৃত্বে হাজার হাজার মানুষের মিছিল অনুষ্ঠিত শীত উপেক্ষা করে খোলা মাঠে রাত কাটালো বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে যেতে পথে পথে বাধা
পাকিস্তান সুপার লিগ থেকে সরে দাঁড়ালেন ডি’ভিলিয়ার্স

পাকিস্তান সুপার লিগ থেকে সরে দাঁড়ালেন ডি’ভিলিয়ার্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারত-পাক রাজনৈতিক অস্থিরতার ফলে লাহোর থেকে পাকিস্তান সুপার লিগের ম্যাচ সরিয়ে নিয়েছে পিসিবি৷ এবার চোটের জন্য পিএসএল থেকে সরে দাঁড়ালেন তারকা ক্রিকেটার৷ প্রাক্তন প্রোটিয়া অধিনায়ক তথা মিস্টার ৩৬০ ডিগ্রি-কে দেখা যাবে না ২০১৯ পিএসএলের বাকি ম্যাচ গুলিতে৷

পাকিস্তান সুপার লিগে না-খেলতে পারলেও এবি-কে দেখা যেতে পারে আসন্ন আইপিএলে৷ ২৩ মার্চ থেকে শরু হচ্ছে দ্বাদশ আইপিএল৷ প্রথম ম্যাচেই গতবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে খেলতে নামবেন আইপিএলে বিরাটের সতীর্থ এই ক্রিকেটার৷

যদিও চোটের জন্য পিএসএল খেলতে না-পারায় হতাশ প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান৷ তিনি বলেন, ‘পিএসএলে খেলতে না-পারায় আমি অত্যন্ত হতাশ৷ পাকিস্তানি ফ্যানেদের সামনে খেলতে না-পারা খারাপ লাগছে৷ কারণ চিকিৎসক আমাকে দু’ সপ্তাহ বিশ্রামের পরামর্শ দিয়েছে৷ সুতরাং করাচির ম্যাচ গুলি থেকে আমাকে সরে দাঁড়াতে হল৷’

পিএসএলে আরব আমীরশাহী লেগ শেষ হবে ৫ মার্চ৷ তার পর খেলা হবে করাচিতে৷ কিন্তু পিঠের চোটের জন্য করাচি লেগে খেলতে পারবেন না ডি’ভিলিয়ার্স৷ লাহোর কালান্ডার্সের হয়ে দুবাই লেগে খেলেছেন এবি৷ রানের মধ্যেও ছিলেন এই প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান৷ কিন্তু করাচি লেগে খেলতে না-পারায় হতাশ ডি’ভিলিয়ার্স বলেন, ‘আশা করি পরবর্তী পিএসএলে খেলতে পারব৷ তবে দ্রুত সুস্থ হয়ে দেশের হয়ে মাঠে ফিরতে চাই৷’

প্রাথমিকভাবে ঠিক ছিল পিএসএলের দু’টি কোয়ালিফায়ার, এলিমিনেটর ও ফাইনাল-সহ মোট আটটি ম্যাচ পাকিস্তানের মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে৷ যার মধ্যে তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল লাহোরের গদ্দাফি স্টেডিয়ামে৷ বাকি পাঁচটি ম্যাচ খেলা হওয়ার কথা ছিল করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে৷ কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আটটি ম্যাচই খেলা হবে করাচিতে৷ কারণ লাহোর থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তিনটি ম্যাচও৷কলকাতা ২৪/৭

মতিহার বার্তা ডট কম ০৪মার্চ ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *