শিরোনাম :
মেয়ের যৌনাঙ্গ কেটে জেলে গেলেন মা

মেয়ের যৌনাঙ্গ কেটে জেলে গেলেন মা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিজের তিন বছরের মেয়ে সন্তানের যৌনাঙ্গ কেটে জেলে গেলেন মা।ওই ঘটনায় অভিযুক্ত ওই মহিলার বিচার চলছিল বেশ কয়েক বছর ধরে। অবশেষে মহিলার দোষ প্রমাণিত হয়।সম্প্রতি তাঁকে ১১ বছরের কারাদণ্ডের সাজা শোনাল আদালত। এমন ঘটনা এই প্রথম ঘটল ব্রিটেনে।

যৌনাঙ্গ কেটে দেওয়া বা ‘খাতনা’র মতো বিশেষ রীতি এখনও পালন করে কিছু সম্প্রদায়ের মানুষ। বলা হয় মেয়েদের শারীরিক চাহিদা কমানোর জন্যই এই বিশেষ নিয়ম পালন করা হয়। কিন্তুএই অমানবিক প্রথার ফলে নানারকম শারীরিক সমস্যা তৈরি হয় মেয়েদের।সে জন্য বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই এই প্রথাকে অনৈতিক ও অপরাধ বলেই গণ্য করে।

এই মতেই ব্রিটেনে ওই মহিলার সাজা হয়েছে। শুধু তাই নয়, অভিযুক্ত ওই মহিলার মোবাইলে মিলেছে বাচ্চাদের আপত্তিকর ছবি ও পর্ন ভিডিয়ো। যার জেরে তার সাজা আরও দু’বছর বাড়িয়ে দেন বিচারক।

বিচার চলার সময় বারবার নিজের দোষ অস্বীকার করেছেন ওই মহিলা। তিনি বলেছেন, যে গাছে চড়তে গিয়ে পড়ে গিয়েছিল তাঁর মেয়ে। তা থেকেই যৌনাঙ্গে আঘাত লাগে ও রক্তক্ষরণ হয়।

তবে মহিলার বাড়ি অনুসন্ধান করতে গিয়ে পুলিশের হাতে এসেছে আরও চাঞ্চল্যকর জিনিসপত্র। গরুর জিভ,ভোঁতা ছুরি,কাটা লেবুর মধ্যে নাম লেখা চিরকুটও উদ্ধার হয়েছে ওই মহিলার বাড়ি থেকে।এই সব জিনিস মেলায় ওইমহিলা ব্ল্যাক ম্যাজিক করতেন বলে মনে করতেন সে দেশের পুলিশ।

 মতিহার বার্তা ডট কম- ১৬ জানুয়ারী ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *