শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ১০লাখ টাকার হেরোইন-সহ ৩জন মাদক কারবারী গ্রেফতার নগরীর তালাইমারীতে গাঁজা কারকারী মল্লিক গ্রেফতার রাজশাহীতে প্রস্তাবিত বঙ্গবন্ধু রিভার সিটি নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রুয়েটকে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রুপান্তর করতে হলে সকল ক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা জরুরী চিপস্ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ চেষ্টা: আসামি নাইম গ্রেফতার এইচএসসি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে আরএমপি’র নোটিশ জারি তানোরে ক্লুলেস হত্যা মামলার পলাতক আসামি ইকবাল গ্রেফতার কৃষিতে বির্পযয়ের আশঙ্কা তানোরে চোরাপথে আশা মানহীন সারে বাজার সয়লাব বাঘায় বাবুল হত্যা মামলায় চেয়ারম্যানসহ ৭ জনকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ সিংড়ায় ক্যান্সারে আক্রান্ত ২২ ব্যক্তির মাঝে চেক বিতরণ
রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন: মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টা, প্রধান আসামীদের গ্রেফতার করছে না এসআই ফারুক!

রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন: মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টা, প্রধান আসামীদের গ্রেফতার করছে না এসআই ফারুক!

রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন: মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টা, প্রধান আসামীদের গ্রেফতার করছে না এসআই ফারুক!!
রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন: মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টা, প্রধান আসামীদের গ্রেফতার করছে না এসআই ফারুক!!

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টার প্রধান আসামীদের গ্রেফতার করছে না চন্দ্রিমা থানা পুলিশ।

এই দাবিতে বুধবার (২ ফেব্রুয়ারী) সকাল ১১টায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী মোসা. জান্নাতুল ফেরদৌসী (৩০) নামে এক নারী সংবাদ সম্মেলন করেছেন রাজশাহী মহানগর প্রেসক্লাবে। এ সময় তার সাথে ছিলেন সন্তান ও স্বামী মো. আবুল হাসেম। ভুক্তভোগী আবুল হোসেমের পিতা মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল প্রামনিক ও তার আপন বড় ভাই মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল কাশেম । তার মুক্তিযোদ্ধা নম্বর ০১৫০০০০৪৮৮৭।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মোসা. জান্নাতুল ফেরদৌসী।

তিনি তাঁর লিখিত বক্তব্যে বলেন, শত্রুতার জের ধরে গত (৪ জানুয়ারী) সন্ধ্যা ৬ টায় শালবাগান সিটি গ্যারেজের পেছনে (নয়ন বিডিআর এর বাড়ির সামনে) রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন এলাকার ১২/১৩ জন দূর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার স্বামীকে এলোপাথারী ভাবে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। পরে আমার স্বামী অচেতন হয়ে পড়লে দূর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। ওই সময় স্থানীয়দের সহযোগীতায় অটোরিক্সা যোগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে ভর্তি করা হলে তাকে দ্রুত ওটিতে নেয় কর্তব্যরত চিকিৎসক। সেখানে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ১৭টি সেলাই দেয়া হয়। এরপর ওটিতে জরুরী অপারেশন শেষে রামেকের ৪ নং ওয়ার্ডের ৫নং বেডে রেখে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়।

দীর্ঘ ৫ দিন চিকিৎসা শেষে (৯ জানুয়ারী) আমার স্বামীকে ছুটি দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এরপর গত (৫ জানুয়ারী) আমি বাদী হয়ে চন্দ্রিমা থানায় একটি মামলা দায়ের করি। মামলায় ৭জন আসামীর নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ৪/৫জনকে আসামী করা হয়। তাদের মধ্যে ৪ জন আসামী আদালত থেকে জামিনে মুক্ত আছে।

তবে প্রধান আসামী রঞ্জু শেখ, চাকু সেলিম ও জয় ওয়ারেন্ট নিয়ে প্রকাশ্যে চলাফেরা করলেও মহানগরীর চন্দ্রিমা থানার পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফারুককে আসামীদের অবস্থানের কথা জানালেও অজ্ঞাত কারনে আসামীদের গ্রেফতার করেছেন না তিনি।

তিনি আরও জানান, উদ্বেগজনক বিষয় হলো আসামীরা প্রকাশ্যে বলে বেড়াচ্ছে, আমরা হইলাম বসের লোক। আমাদেরকে পুলিশ ধরবেনা। বস বলেছে এবার তো চাকু মেরেছিস। বেঁচে গেছে। এরপর একেবারে প্রাণে মেরে ফেলবি। এছাড়া বিভিন্ন লোক মারফত আমাকে মামলা তুলে নিতে হুমকি অব্যাহত রেখেছে। আসামীরা বলছে মামলা না তুললে আমাকে সহ আমার নাবালক দুই বাচ্চাদের প্রাণে মেরে ফেলবে।

এমতাবস্থায় তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছেন। তিনি তার ও স্বামী সন্তানের নিরাপত্তার চেয়ে সাংবাদিকদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং আরএমপি পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক এর কাছে আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার ও ন্যায় বিচারের দাবি জানান।

এ ব্যপারে জানতে চাইলে চন্দ্রিমা থানার এসআই ফারুক জানান, আসামী গ্রেফতার অভিযান চলছে। তারার পালিয়ে বেড়ানোর কারনে ধরতে একটু সময় লাগছে। তবে শিঘ্রই তাদের গ্রেফতার করা হবে।

তবে চন্দ্রিমা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. এমরান আলীর মুঠো ফোনে বারবার চেস্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ফলে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মতিহার বার্তা / এম জি

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply