শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ১০লাখ টাকার হেরোইন-সহ ৩জন মাদক কারবারী গ্রেফতার নগরীর তালাইমারীতে গাঁজা কারকারী মল্লিক গ্রেফতার রাজশাহীতে প্রস্তাবিত বঙ্গবন্ধু রিভার সিটি নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রুয়েটকে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রুপান্তর করতে হলে সকল ক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা জরুরী চিপস্ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ চেষ্টা: আসামি নাইম গ্রেফতার এইচএসসি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে আরএমপি’র নোটিশ জারি তানোরে ক্লুলেস হত্যা মামলার পলাতক আসামি ইকবাল গ্রেফতার কৃষিতে বির্পযয়ের আশঙ্কা তানোরে চোরাপথে আশা মানহীন সারে বাজার সয়লাব বাঘায় বাবুল হত্যা মামলায় চেয়ারম্যানসহ ৭ জনকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ সিংড়ায় ক্যান্সারে আক্রান্ত ২২ ব্যক্তির মাঝে চেক বিতরণ
গোদাগাড়িতে সাবেক এনএসআই সদস্যকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ

গোদাগাড়িতে সাবেক এনএসআই সদস্যকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ

গোদাগাড়িতে সাবেক এনএসআই সদস্যকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ
গোদাগাড়িতে সাবেক এনএসআই সদস্যকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ

রাজশাহীর গোদাগাড়িতে আজাহার আলী নামে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দার (এনএসআই) সাবেক এক সদস্যকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ উঠেছে। জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তার বাড়িতে হামলা চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন তার মেয়ে আফরোজা আক্তার মিমি।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজশাহী প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে মিমি বলেন, উপজেলার কেল্লাবারইপাড়া এলাকার এশরাফিল, বাদল, শরিফ ও মিন্টুসহ কয়েকজন সন্ত্রাসী আমাদের বাসাবাড়িতে হামলা চালায় এবং হুমকি দেয় প্রাণনাশের। বাড়ির জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরে এমনটা করেছে তারা। হুমকির পর জমিটিতে জোরপূর্বক প্রাচীর তুলতে শুরু করে। অথচ আগে থেকে জমিটির বিষয়ে আদালতে একটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। সেই মামলায় জমিটিতে প্রাচীর নির্মাণে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে ১৪৪ ধারা জারি করেছেন আদালত।

মিমি জানান, আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সন্ত্রাসীরা জোরপূর্বক কাজ শুরু করেছে। এছাড়া প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছে তাদেরকে। নিরাপত্তা নিয়ে চরম শঙ্কায় রয়েছেন তারা। তার বাবা সাবেক এনএসআই সদস্য এসবের দুশ্চিন্তায় ব্রেইন স্ট্রোক করেছেন।

নিরাপত্তা নিশ্চিতপূর্বক আদালতের নিষেধাজ্ঞা দেয়া জমিতে নির্মাণকাজ বন্ধ এবং দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জরুরি ভিত্তিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মিমি। এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, আদালতের আদেশ মেনে চলে সবারই উচিত। এ ঘটনায় দ্রুত যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মতিহার বার্তা/ জি আর

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply