শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে জমি সংক্লান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ২ রাজশাহী মহানগরীতে ডাকাত দলনেতা গ্রেফতার রাজশাহী মহানগরীর ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করলেন রাসিক মেয়র গোদাগাড়ীতে নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিলেন জেলা প্রশাসক রাজশাহীতে নাশকতার মামলায় বিএনপির চার নেতা গ্রেপ্তার, আহত ১ মেসিরা হারুন বা জিতুন, ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতলে বেশি খুশি হবেন আর্জেন্টিনার কোচ! রান্না করা খাবার গরম করে খান? কোন খাবারগুলি দু’বার গরম করলে মারাত্মক বিপদ হতে পারে? কিশোরীর পাকস্থলীতে ৩ কেজি চুল! বৃদ্ধের পেট থেকে পাওয়া গেল ১৮৭ টি কয়েন! লাগবে না টাকা, লাগবে না কার্ড, নেই চুরির ভয়, কেনাকাটা জন্য অভিনব উপায় বেছে নিলেন যুবক
সিলেটে বিএনপি নেতাদের হাতে লাঞ্ছিত মোকাব্বির, বলছেন-পরোয়া করি না

সিলেটে বিএনপি নেতাদের হাতে লাঞ্ছিত মোকাব্বির, বলছেন-পরোয়া করি না

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গণফোরাম থেকে বিজয়ী মোকাব্বির খান সিলেট জেলা পরিষদে একটি অনুষ্ঠানে বিএনপি ও মহিলা দলের নেতা-কর্মীদের তোপের মুখে পড়ে লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন।

যদিও বিএনপি নেতাদের এমন আচরণে তিনি বলেছেন- এসব আমি পরোয়া করি না। আমি জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে নির্বাচিত হয়েছি, জনগণের দাবিতেই সংসদে বসেছি। তবে এমন আচরণ পূর্বপরিকল্পিত বলেই দাবি করছেন তিনি।

গণমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, মোকাব্বির খান অনুষ্ঠান স্থলে প্রবেশের পরই বিএনপি নেতা-কর্মীরা হল থেকে বের হয়ে যান। মোকাব্বির খানকে আমন্ত্রণ করায় আয়োজকদের উপরও ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা। একপর্যায়ে বিএনপি ও মহিলা দলের নেতা-কর্মীরা অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করে বের হয়ে আসেন। এসময় হলরুমের বাইরে মহিলা দলের নেত্রীরা মারমুখী হয়ে উঠলে বিএনপি নেতারা তাদেরকে শান্ত করার চেষ্টা করেন।

একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাতে জানা যায়, শপথ গ্রহণ করে বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্টকে বেকায়দায় ফেলায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে জনগণের সামনে মোকাব্বির খানকে হেনস্তা করতেই এমন কূটকৌশল করা হয়েছে। আর এই পরিকল্পনার নির্দেশ এসেছে সরাসরি তারেক রহমানের কাছ থেকে। যদিও পরিস্থিতি ঘোলাটে হওয়ার আগেই মোকাব্বির খান সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রেখে অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করেছেন, নইলে তাকে রক্তাক্ত করারও পরিকল্পনা ছিলো।

এদিকে এমন ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মোকাব্বির খান বলেন, সহজ কথা হচ্ছে- আমি বিএনপির কেউ না। ফলে তারা কে কী বললো সেটি দেখার বিষয় নয়। আমি গণফোরাম থেকে নির্বাচিত হয়েছি। বিএনপি নেতারা পরিকল্পিতভাবে আমাকে একের পর এক হেনস্তা করেই যাচ্ছে। এসব নিয়ে আমি ভাবছি না। কেননা, আমার সঙ্গে আছে আমজনতা। যারা আমাকে নির্বাচিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, সিলেট-২ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হন গণফোরামের মোকাব্বির খান। এরপর ঐক্যফ্রন্ট ও গণফোরামের সিদ্ধান্ত না মেনে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়ায় তার উপর ক্ষুব্ধ হয় সিলেট বিএনপি। জোটের সিদ্ধান্ত অমান্য করায় মোকাব্বিরকে চড়া মাশুল দিতে হবে এমন হুমকিও দেন বিএনপি নেতারা।

মতিহার বার্তা ডট কম ১২ এপ্রিল ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *