শিরোনাম :
ভলকানাইজিং দোকান পেয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছে বিশাল রাবির ‘এ’ ইউনিটের সাবজেক্ট চয়েস শুরু পেটের ‘মৌচাক’ ভাঙা হবে কী ভাবে, চিন্তায় চিকিৎসকেরা আধ কিলোমিটার উঁচু, তিন কিলোমিটার পরিধি! ঝুলন্ত শহর তৈরি হচ্ছে দুবাইয়ে? প্রায়ই মাথা যন্ত্রণায় ভোগেন? ঘরোয়া উপায়ে কী ভাবে মিলবে স্বস্তি প্রেমিকার দু’ লক্ষ টাকার ব্যাগে প্রস্রাব প্রেমিকের! আদালতের নির্দেশে দিতে হল ক্ষতিপূরণ পার্টিতে হুল্লোড়ে ব্যস্ত প্রধানমন্ত্রী! ফিনল্যান্ডের আকাশসীমায় ঢুকে পড়ল রুশ যুদ্ধবিমান রাজশাহীতে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হলো শুভ জন্মাষ্টমী আমি এনজিও খুলতে আসিনি, বিনোদনের জন্য ছবি করি: তাপসী ভারত মহাসাগরে ঘাঁটি গড়েছে চিনা নৌবাহিনী!
বিজ্ঞাপনে মহিলাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি ইরানের

বিজ্ঞাপনে মহিলাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি ইরানের

বিজ্ঞাপনে মহিলাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি ইরানের
বিজ্ঞাপনে মহিলাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি ইরানের

রিয়াজ উদ্দিন: অপরূপ নৈসর্গিক দৃশ্যের মধ্যে দিয়ে গাড়ি চলছে। ভিতরে বসে আছেন এক মহিলা । তাঁর মাথায় হিজাবথাকলেও সেটি বেশ ঢিলেঢালা । গাড়ি এগোনোর সঙ্গে সঙ্গেই হাতে ধরা চকলেট স্টিক আইসক্রিমে লাস্যময়ী ভঙ্গিতে কামড় বসালেন মহিলা।

ইরানের একটি আইসক্রিম সংস্থার বিজ্ঞাপনে দেখানো হয়েছে এই ঘটনা। এরপর থেকেই কট্টরপন্থীদের রোষের  মুখে পড়েছে বিজ্ঞাপনটি । শুধু তাই নয়, এই ঘটনার জেরে যে কোনও রকম বিজ্ঞাপনে মহিলাদের অভিনয় করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল ইরানের সংস্কৃতি মন্ত্রক এবং ইসলামিক গাইডেন্স। বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলিকে চিঠি লিখে এই নির্দেশের কথা জানিয়েছে সেদেশের সংস্কৃতি মন্ত্রক।

ডমিনোর ওই আইসক্রিমের বিজ্ঞাপন মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই তা নিয়ে জলঘোলা শুরু হয়েছে ইরানে। ডমিনোর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার জন্য ইসলামীয় ধর্মগুরুরা আদেশ দিয়েছেন সরকারি আধিকারিকদের। এরপরেই আধিকারিকরা বিজ্ঞাপনটিকে শালীনতা লঙ্ঘনকারী এবং মহিলাদের মূল্যবোধের পক্ষে অবমাননাকর বলে ঘোষণা করেছে। কোনও রকম বিজ্ঞাপনেই মহিলারা অভিনয় করতে পারবেন না, জানানো হয়েছে স্পষ্টই।

তবে এই ঘটনাকে ঢাল করে ইরানের কট্টরপন্থী সরকার আসলে মহিলাদের হিজাবের ব্যবহার নিয়ে আরও কড়া হতে চাইছে বলেই ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের। প্রসঙ্গত, ১৯৭৯ সালে ইসলামের অভ্যুত্থানের পর থেকেই জনসমক্ষে সেদেশের মহিলাদের হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। যদিও এই আইনের বিরুদ্ধাচারণ করে বহু মহিলা সোচ্চার হয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতেও একাধিক ক্যাম্পেন করেছেন ইরানের স্বাধীনচেতা নারীরা। এমনকি, জনসমক্ষে হিজাব খুলে প্রতিবাদ করে শাস্তিরও সম্মুখীন হয়েছেন একাধিক মহিলা। তারপরেও হিজাব নিয়ে সরকরের সিদ্ধান্ত যে এক চুলও বদলায়নি, এই ঘটনায় তা আবারও স্পষ্ট হয়ে গেল।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.