কোকোর সম্পদের হিসাব চেয়ে রোষানলে তারেক, পরিবারের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত শর্মিলা

কোকোর সম্পদের হিসাব চেয়ে রোষানলে তারেক, পরিবারের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত শর্মিলা

নিউজ ডেস্ক : সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ায় প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর বিনিয়োগকৃত অর্থ ও সম্পদের হিসেব চাওয়ায় কোকো পত্নী শর্মিলা রহমানের ক্ষোভের মুখে পড়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। অযাচিত হস্তক্ষেপ করে তারেক রহমান মৃত ভাইয়ের সম্পদ কুক্ষিগত করে শর্মিলা ও তাদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তা মুখে ঠেলে দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেছেন শর্মিলা রহমান।

যুক্তরাজ্য বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে অভিযোগের বিষয়ে বিস্তারিত জানা গেছে।

যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি নাসির আহমেদ শাহিনের ঘনিষ্ঠ সহচর ও লন্ডন বিএনপি নেতা আব্দুল বাতেনের বরাতে জানা যায়, আরাফাত রহমানের মৃত্যুর পর তার পরিবারের দেখভাল করার জন্য লন্ডনে নিয়ে আসেন তারেক। এর পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে কোকোর বিভিন্ন জায়গায় বিনিয়োগ করা প্রায় ৪৫০ কোটি টাকার হিসেব চাইতেন তারেক। তবে কোকোর সম্পদের হিসেব দিতে রাজি হতেন না শর্মিলা। কারণ শর্মিলার ধারণা ছিল, তারেক কৌশলে সম্পদের তত্ত্বাবধায়ক সেজে কোকোর সম্পদ কুক্ষিগত করে শর্মিলাকে অনুগত করার চেষ্টা করবেন। পাশাপাশি তারেক রহমান শর্মিলাকে বিএনপির জন্য কাজ করতে বাধ্য করাতে পরেন। তবে এসব কাজ শর্মিলার মোটেও পছন্দ নয়।

বাতেন আরো জানান, সর্বশেষ ৮ এপ্রিল রাতে কিংস্টনের বাসায় কোকোর পরিবারকে রাতের দাওয়াত দিয়ে সম্পদের খোঁজ-খবর নিলে পরিস্থিতি বিগড়ে যায়। এসময় শর্মিলা অন্যের সম্পদে নজরদারি বন্ধ করে চাপ সৃষ্টি না করতেও অনুরোধ করেন। এক পর্যায়ে তারেক ক্ষিপ্ত হয়ে জোরপূর্বক কোকোর সম্পদের তত্ত্বাবধায়কের হতে চাইলে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়েন শর্মিলা। পাশাপাশি বেশি চাপ দিলে সম্পর্ক ভুলে আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হবেন বলেও তারেককে হুমকি দেন শর্মিলা।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে লন্ডন বিএনপি নেতা কয়ছর এম আহমেদ বলেন, বড় ভাই ছোট ভাইয়ের সম্পদের হিসেব নিতেই পারে। এটি নিয়ে ভুল বুঝেছেন শর্মিলা ম্যাডাম। তারেক রহমান এমন মানুষ নন। যেহেতু কোকোর সম্পদগুলো ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে, তাই তারেক রহমান সেগুলোর সুষ্ঠু ম্যানেজমেন্ট করতে চাইছেন। সেটি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি চলছে। তারেক রহমান এত লোভী নন।

তিনি আরো বলেন, তারেক রহমানকে বদনাম করতে লন্ডনের কিছু সংস্কারপন্থী নেতারা বিষয়টি নিয়ে মিথ্যাচার ছড়াচ্ছে। তারেক রহমানের সম্পদের অভাব নেই। পরিবারকে বিচ্ছিন্ন করতে ঘৃণ্য রাজনীতি করছেন দলের কিছু নেতা আর তাদের ফাঁদে পা দিয়েছেন শর্মিলা ম্যাডাম। বিষয়টি দুঃখজনক।

মতিহার বার্তা ডট কম ১২ এপ্রিল ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *