শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ১০লাখ টাকার হেরোইন-সহ ৩জন মাদক কারবারী গ্রেফতার নগরীর তালাইমারীতে গাঁজা কারকারী মল্লিক গ্রেফতার রাজশাহীতে প্রস্তাবিত বঙ্গবন্ধু রিভার সিটি নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রুয়েটকে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রুপান্তর করতে হলে সকল ক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা জরুরী চিপস্ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ চেষ্টা: আসামি নাইম গ্রেফতার এইচএসসি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে আরএমপি’র নোটিশ জারি তানোরে ক্লুলেস হত্যা মামলার পলাতক আসামি ইকবাল গ্রেফতার কৃষিতে বির্পযয়ের আশঙ্কা তানোরে চোরাপথে আশা মানহীন সারে বাজার সয়লাব বাঘায় বাবুল হত্যা মামলায় চেয়ারম্যানসহ ৭ জনকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ সিংড়ায় ক্যান্সারে আক্রান্ত ২২ ব্যক্তির মাঝে চেক বিতরণ
বিএনপি নেতাদের ‘ছাগল’ বলে ভর্ৎসনা, সভায় উপস্থিত অন্তত ৭ নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

বিএনপি নেতাদের ‘ছাগল’ বলে ভর্ৎসনা, সভায় উপস্থিত অন্তত ৭ নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

মতিহার বার্তা ডেস্ক : কর্নেল অলির অশোভন বক্তব্য নিয়ে বিএনপির অভ্যন্তরে শুরু হওয়া ক্ষোভের রেশ কমছেই না। সম্প্রতি লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ রাজধানীর লেডিস ক্লাবে আয়োজিত এক ইফতার মাহফিলে ইফতারপূর্ব বক্তব্যে বিএনপি নেতাদের তিনি ছাগল বলে মন্তব্য করেছেন। যা বিএনপি নেতাদের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।সূত্র: বাংলা নিউজ ব্যাংক

সূত্র বলছে, ওই অনুষ্ঠানে বিএনপির অনেক বেশকিছু নেতা উপস্থিত থাকার পরেও এ নিয়ে কোনো প্রতিবাদ করেননি। ফলে সেসব নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দলীয় ফোরামে আলোচনা হয়েছে। তবে কী ধরণের শাস্তি প্রদান করা হবে সে বিষয়ে কোনো কিছুই আলোচনা হয়নি।

জানা গেছে, নেতাদের মধ্যে মির্জা আব্বাস, আব্দুল্লাহ আল নোমান, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, শওকত মাহমুদ, আসাদুজ্জামান রিপন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির, নিলোফার চৌধুরী মনিসহ অনেকেই ছিলো। তারা কর্নেল অলির অশালীন বক্তব্য নিয়েও কোনো প্রতিক্রিয়াও জানায়নি।

এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আমি বুঝতে পারছি না- কোন ক্ষোভের কারণে এমন আজেবাজে বকছেন কর্নেল অলি। ২০ দলীয় জোটের একটি ছোট্ট শরিক দল হয়ে বিএনপি নেতাদের নামে এরকম বাজে মন্তব্য করার সাহসই বা কে দিচ্ছে তাকে? দলের ভেতরে ও বাইরে এমনকি রাজনৈতিক মাঠে বিএনপি নেতাদের নিয়ে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়েছে, বলে আমি জেনেছি- ওই সভায় বিএনপির বেশ কিছু নেতা উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু অলির এমন মন্তব্যে তারা কোনো প্রতিবাদও করেননি। যার কারণে দলীয় ফোরামে এ নিয়ে আলোচনা হবে। ওইসব নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, এ অপরাধের কারণে কর্নেল অলিকে জোট থেকে এবং নেতাদের দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হতে পারে। তবে সিদ্ধান্ত জানা যাবে শিগগিরি জোটের বৈঠক ও দলীয় ফোরামের বৈঠকে।

মতিহার বার্তা ডট কম – ২২ মে, ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply