রাজশাহীতে সরকারি কার্যক্রমে নাগরিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত

রাজশাহীতে সরকারি কার্যক্রমে নাগরিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত

রাজশাহীতে সরকারি কার্যক্রমে নাগরিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত
সরকারি কার্যক্রমে নাগরিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে আলোচনা

রাজশাহীতে সরকারি কার্যক্রমে নাগরিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত

এসএম বিশাল: রাজশাহী নগরীতে সরকারি কার্যক্রমে নাগরিক সম্পৃক্ততা বিষয়ে বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত  হয়েছে। আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টায় পদ্মা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত চেজ রাজ্জাক সুইস এর সম্মেলন কক্ষে এ কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ আলী নুর, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার, এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ের পরিচালক সমন্বয় ও প্রশিক্ষন মোঃশীষ হায়দার চৌধুরী, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের পিআইজিডি ড. মোঃ মির্জা হাসান, উক্ত কর্মশালায় সভাপত্তিত করেন রাজশাহী জেলা প্রসাশক মোঃ হামিদুল ইসলাম। উক্ত কর্মশালায় বক্তারা বলেন,

পরিকল্পনায় মন্ত্রনালয়ের অধীন বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিটি ( সিপিটিউ ) এর আওতায় দেশের ৪৮টি উপজেলায় পর্যায়ক্রমে সরকারি ক্রয় কার্যের বাস্তবায়নে স্থানীয় নাগরিকদের সম্পৃক্ততার বিষয়ে কাজ করছে ।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্রাক ইন্সটিটিউট অফ গভর্ন্যান্স ও ডেভেলপমেন্ট ( বিআইজিডি ) এ কাজের জন্য সিপিটিইউ ‘ র পরামর্শক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছে । বিআইজিডি সরকারি ক্রয়ে নাগরিক সংশ্লিষ্টতা আনয়নের উপায় নির্ধারনের লক্ষ্যে বাস্তবায়নযোগ্য একটি কৌশল প্রনয়ণ এবং মাঠ পর্যায়ে সরকারি ক্রয়ের বাস্তবায়ন স্থানীয় নাগরিকদের মাধ্যমে মনিটরিং – এ সহায়তা করছে ।

বিআইজিডি সরকারি ক্রয় করে নাগরিক সম্পাক্ততা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে এমন একটি কৌশল ব্যবহার করতে চায় যা বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিবেশের সঙ্গে মানানসই , টেকসই এবং বাস্তবায়নের ব্যয় যৎসামান্য ।

পূর্ববর্তী বছর গুলােতে পিপিয়াৱপি ২ প্রকল্পটি বাস্তবায়নের অভিজ্ঞতা থেকে বিআইজিডি সাইট – স্পেসিফিক বা কন্ট্রাক্ট ভিত্তিক নাগরিক সম্পৃক্ততার ধারণাটি মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়নের জন্য চেষ্টা করছে যা প্রথম বছরে ১২টি এবং দ্বিতীয় বছরে আরও ৩৬টি উপজেলায় চালু থাকবে ।

বেশিরভাগ উপজেলাতে প্রতিটি কাজের সাইটে আশেপাশের লােকজনদের নিয়ে একটি নাগরিক গ্রুপ তৈরি করা হচ্ছে যাদের দায়িত্ব হচ্ছে ওই কাজের অগ্রগতি পর্যবেক্ষন করা এবং কোন অনিয়ম দেখলে স্থানীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তাকে জানানাে ।

এই গ্রুপটি নাগরিক পর্যবেক্ষক নামে পরিচিত । পরিশেষে উক্ত কর্মশালায় অংশগ্রহনকারী সরকারি ক্রয়কারী অফিসের কর্মকর্তাবৃন্দ টেন্ডারর, সুশীল সমাজ ও গনমাধ্যমের প্রতিনিধিবৃন্দসহ স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি ও সমাজের অন্যান্য ব্যাক্তিবর্গদের সাথে মতবিনিময় করা করেন তারা।

মতিহার বার্তা ডট কম  ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply