শিরোনাম :
বাড়িতে সিসি ক্যামেরা বসিয়ে নারীর মাদক বিক্রি রাজশাহী মহানগরীতে গ্যাস সিলিন্ডার কেটে বিক্রির সময় গ্রেপ্তার ৩ রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার – ১৮ মোহনপুরে বিপুল পরিমান গাঁজা-সহ গ্রেফতার মাদক কারবারী রানবীর জাহান রাজশাহী জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা সদস্যদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতারণ সিরাজগঞ্জে ছিনতাই চক্রের সক্রিয় ৫জন সদস্য গ্রেফতার চকলেটের প্রলোভনে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা রুয়েট কেন্দ্রে ১ম বর্ষ সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন মেস মালিকদের কাছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অসহায় রাজশাহীতে মাদক কারবারী, মাদকসেবী, ও ২জন পলাতক আসামী-সহ গ্রেফতার- ৮
সাংবাদিক পরিচয়ে ইয়াবা বিক্রির সময় নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক

সাংবাদিক পরিচয়ে ইয়াবা বিক্রির সময় নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক

সাংবাদিক পরিচয়ে ইয়াবা বিক্রির সময় নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক
নারী মাদক ব্যবসায়ী লিপি আটক

মতিহার বার্তা ডেস্ক: যশোরে কখনও সাংবাদিক কখনও পুলিশ পরিচয়ে ইয়াবা ব্যবসায়ী রেহানা আক্তার লিপি (২৫) নামের একজন নারীসহ ৪ জন সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। দীর্ঘদিন ধরে কখনও সাংবাদিক, আবার কখনও পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা করে আসছিল এ মাদক ব্যবসায়ী। গ্রেফতারের সময় তার নিকট হতে পুলিশের পোশাক, হ্যান্ডকাফ, ওয়াকিটকি জব্দ করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে যশোর জিলা স্কুলের সামনে থেকে তাদের গ্রেফতার করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত রেহেনা চৌগাছা উপজেলার মাশিলা নারায়ণপুর গ্রামের মিঠুর স্ত্রী। তিনি নিজেকে সাপ্তাহিক স্মৃতি পত্রিকার সাংবাদিক হিসেবে দাবি করেন।

গ্রেফতার অপর চারজন হলেন, যশোর শহরের চাঁচড়া রায়পাড়া বিল্লা মসজিদ রোডের পিয়া (২০), শংকরপুর সরকারি মুরগির খামার এলাকার সোহেল (১৯), রেলরোডের রেলবাজার এলাকার বিসমিল্লাহ সেলুনের পেছনের বাসিন্দা বাবু ও আশ্রম রোডের সাহেব বাবুর বাড়ির সামনের বাসিন্দা তুহিন।

যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সমীর কুমার সরকার বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পারে, মোটরসাইকেলের সামনে ‘প্রেস’ লিখে শহরময় ঘুরে বেড়ান এক নারী। সাংবাদিক পরিচয়ে তিনি শহরের বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা বিক্রি করে আসছিলেন। তাকে গ্রেফতার করার জন্য কয়েকদিন ধরেই নজরে রাখা হয়েছিল। পরে বুধবার বিকেলে যশোর জিলা স্কুলের সামনে ওই নারীর সঙ্গীরা অবস্থান করছে জানতে পেরে তার চার সহযোগীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে রেহেনা জানান, তিনি একটি অনলাইন শপ থেকে ওয়াকিটকি সেটটি কিনেছেন। ওয়াকিটকি দেখিয়ে পুলিশ পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি স্বীকার করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

মতিহার বার্তা ডট কম ১৭ অক্টোবর ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply