শিরোনাম :
ষাঁড়ে খেয়ে নিল সোনার গয়না, গোবরের অপেক্ষায় গেরস্থ

ষাঁড়ে খেয়ে নিল সোনার গয়না, গোবরের অপেক্ষায় গেরস্থ

ষাঁড়ে খেয়ে নিল সোনার গয়না, গোবরের অপেক্ষায় গেরস্থ
ষাঁড়ে খেয়ে নিল সোনার গয়না, গোবরের অপেক্ষায় গেরস্থ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রবাদ রয়েছে, গল্পের গরু গাছে ওঠে! কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, গরুতে থুরি ষাঁড়ে কী না করে! সম্প্রতি চেন্নাইতে একটি গরুর পেটে অস্ত্রোপচার করে ৫২ কেজি প্লাস্টিক বেরিয়েছে। এ বার হরিয়ানার একটি গ্রামে একটি ষাঁড় খেয়ে নিল চল্লিশ গ্রাম সোনার গয়না।

যে বাড়িতে এই অদ্ভূত কাণ্ড ঘটেছে, গত তিন দিন ধরে সেখানে অপেক্ষা করছেন, কখন গোবর দেবে গরুটি। সে জন্য তাকে ঘাস, খড়, গুড় কী না খাওয়ানো চলছে।

ফ্রি প্রেস জার্নাল ও দ্য ট্রিবিউনে এ ব্যাপারে প্রতিবেদনটি প্রথমে প্রকাশিত হয়েছে। পরে বুধবার সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলিতে এই খবর প্রকাশিত হতে শুরু করেছে। তা নেট দুনিয়ায় হই চইও ফেলে দিয়েছে।

দ্য ট্রিবিউনে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী জনক রাজ নামে ওই বাড়ির কর্তা আদতে ব্যবসায়ী। রান্না ঘরে একটা গামলার মধ্যে কাপড়ে মুড়ে সোনার গয়নাগুলো রাখা ছিল। পরিবারেরই কেউ রান্না ঘরের সবজি কাটার পর তার অবশিষ্ট অংশ ওই গামলায় ভরে উঠোনের এক কোণে ফেলেন। পরে গয়নার খোঁজ পড়তে দেখা যায় উঠোনের ওই জায়গায় এক জোড়া কানের দুল পড়ে রয়েছে।

বাড়িতে সিসিটিভি লাগানো ছিল। তার ফুটেজে দেখা যায়, পাড়ারই একটা ষাঁড় এসে ওই শাক সবজির অবশিষ্ট খেয়ে যাচ্ছে। এর পর ওই ষাঁড়টিকে তাঁরা খুঁজে বের করেন। বাড়িতে এনে বেঁধে রাখেন।

তার পর থেকেই অপেক্ষার শুরু। গত তিন দিনে গরুটি যে একেবারও গোবর দেয়নি তা নয়। কিন্তু সেই গোবরে অমোঘ ধনটিকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। তাই ভাল মন্দ খাওয়ানো চলছে গরুটি। যাতে আরও গোবর দেয়।

যদিও লালা লাজপত রাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরনারি বিভাগের অধ্যাপক অশোক কুমারের কথায়, গরুর পাকস্থলীতে চারটি অংশ থাকে। ওই চারটি প্রকোষ্ঠ পার করে গয়না গোবরের সঙ্গে বেরিয়ে আসবে এমন আশা ক্ষীণ।

মতিহার বার্তা ডট কম – ২৩ অক্টোবর ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply