শিরোনাম :
কাটাখালীর মাসকাটাদিঘী ও আশরাফ মেমোরিয়াল স্কুল শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিলেন আরএমপি পুলিশ কমিশনার

কাটাখালীর মাসকাটাদিঘী ও আশরাফ মেমোরিয়াল স্কুল শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিলেন আরএমপি পুলিশ কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাসকাটাদিঘী স্কুল এন্ড কলেজ ও আশরাফ মেমোরিয়াল অক্সফোর্ড কিন্ডার গার্টেন স্কুলের বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগীতা, পুরস্কার বিতরণী, জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে কাটাখালী থানাধীন মাসকাটাদিঘী স্কুল এন্ড কলেজ মাঠ প্রঙ্গনে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

কাটাখালী পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্বাস আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার বিপিএম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জুট মিলের প্রকল্প প্রধান ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জিয়াউল হক, মতিহার জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ সাজিদ হোসেন, কাজী নজরুল ইসলাম কলেজের সভাপতি মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান, কাটাখালী পৌর আ’লীগের আহ্বায়ক আলহাজ্ব মোঃ হযরত আলী, কাটাখালী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মহরম আলী খাঁন, কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহ্ জামাল, পাট কল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল হান্নান তালুকদার ও সমসাদীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শরিফুল ইসলাম। অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন মাসকাটাদিঘী স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মোঃ আখতার হাসান ও আশরাফ মেমোরিয়াল অক্সফোর্ড কিন্ডার গার্টেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ আরিফ হোসেন (রান্টু) ও কাটাখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার বলেছেন, জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূলে পুলিশ শক্ত অবস্থানে রয়েছে। এ ব্যাপারে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। যারা মাদক সেবন ও সন্ত্রাসী করে এবং মাদক বিক্রি করে তারা দেশ ও সমাজের শক্র। এদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে মাদক ও সন্ত্রাস দমনে পুলিশকে সহযোগিতা করতে হবে। পুলিশকে তথ্য দিলে অবশ্যই পুলিশ এসব মাদক পাচারকারী ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিবে।

রাজশাহী নগরী শান্তির নগরী, শিক্ষাবান্ধব নগরী এই নগরীতে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে আমরা বদ্ধপরিকর। অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টিকারীদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে। মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান জিরো টলারেন্স। মাদক ব্যবসায়ীরা কোনোভাবেই পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পাবে না।

আরএমপি কমিশনার আরো বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ সবসময় কঠোর অবস্থান নিয়েছে। ভবিষ্যতেও এমন অবস্থান থাকবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি কাটাখালী পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্বাস আলী তার বক্তব্যে বলেন, লেখাপড়ার মানের দিক দিয়ে কাটাখালীর সবকয়টি স্কুল এখন সবার শীর্ষে। কাটাখালী এখন আর অতটা গ্রাম নাই এখন শহরে পরিনত হচ্ছে।

বর্তমান কাটাখালীতে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী কমে গেছে। যতটুকু আছে তাদের কাছে অনুরোধ দ্রুত সন্ত্রাস ও মাদক ব্যবসা ছেড়ে আলো পথে ফিরে আসুন। না হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। এখন কাটাখালী পৌর এলাকা শান্তির ও উন্নতির পৌরসভা হিসেবে পরিনত হয়েছে। এছাড়াও পূর্বে কাটাখালী পৌর এলাকা এক সময় জামাত-বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ছিলো। কিন্তু বর্তমানে আওয়ামীলীগের দূর্গ হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে।

পৌর বাসীর উদ্দ্যেশ্যে মেয়র বলেন, আপনাদের সহযোগীতার আমি কাটাখালী পৌরসভাকে একটি মড়েলে পরিনত করেছি, পৌরবাসীর সমস্যা দ্রুত সমাধান করার চেষ্টা করি। তাই আপনারা আপনাদের সন্তানদের লেখাপড়ার প্রতি যত্ন নেবেন, তাদের খোঁজ-খবর নেবেন। তারা যেন কোন ভাবেই মাদকাসক্ত না হয়।

ছেলে মেয়েদের লেখাপড়া করাবেন। উপযুক্ত সময়ে তাদের বিয়ে দিবেন কোন ভাবেই তাদের বাল্য বিয়ে দিবেন না। আপনাদের যে কোন ধরনের সমস্যায় আমি আপনাদের পাশে আছি ছিলাম এবং থাকবো বলেও অঙ্গিকার করেন কাটাখালী পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্বাস আলী।

পরে বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহনকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ, জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার ও কাটাখালী পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্বাস আলীসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

পুরস্কার বিতরণ শেষে শিক্ষার্থীদের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

মতিহার বার্তা ডট কম-৩০ জানুয়ারী ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *