রাজশাহীতে নিজ নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণকারী পিতা আন্তঃজেলা গরুচোর সিন্ডিকেটের সদস্য

রাজশাহীতে নিজ নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণকারী পিতা আন্তঃজেলা গরুচোর সিন্ডিকেটের সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী নগরীতে নিজের নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণকারী কসাই পিতা নজরুল আন্তঃজেলা গরুচোর সিন্ডিকেটের সদস্য বলে জানালো তার স্ত্রী নার্গিস।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়ি ফিরে সাংবাদিকদের নার্গিস জানায়, আমার স্বামী নজরুল কসাই আমার নাবালিকা (১৪) মেয়ের ধর্ষণকারী।

শুধু তাই নয় সে গরুচোর সিন্ডিকেটের একজন সক্রীয় সদস্য। তার মূল সহযোগী ও মদদ দাতা তেরখাদিয়া এলাকার হুরমত কসাইয়ের ছেলে শাহীন (৩৮)।

নজরুলের কাজ হলো নওগাঁসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে গরু চুরী করে এনে শাহীন কসাইয়ের হেফাজতে রাখা। শাহীন কসাই চুরীর গরু জবাই করে তেরখাদিয়া কাচাবাজার ও উপ-শহর নিউমার্কেটে মাংস বিক্রি করে এবং অর্জিত অর্থ নিজেদের মাঝে বাটোয়ারা করে।

বিষয়টি সাংবাদিকদের নিকট খুলে বলেন, লম্পট কসাই নজরুলের স্ত্রী নার্গিস। এরই ধারাবাহিকতায় গত বছরে ট্রাক যোগে চুরী করে গরু আনার পথে ডাকাত সন্দেহ্ পুলিশের গুলিতে নজরুল কসাইয়ের ছেলে সুজন (২৪) নিহত হয়। যা একাধিক পত্র পত্রিকায় সংবাদটি প্রকাশিত হয়। পরে সার্বিক বিষয় নিয়ে তদবির করে শাহীন কসাই।

তিনি আরো বলেন, গত ৩/৪ মাস পূর্বে চালক না হয়েও ট্রাক চালাতে গিয়ে ট্রাক চাপায় বোয়ালিয়া থানাধিন মালদাহ কলোনী এলাকায় এক পথচারী শিশুকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটির মৃত্যু হয়। ওই সময় স্থানীয়রা নজরুল কসাইকে আটক করে পুলিশে দিলে পুলিশ মামলা দিয়ে তাকে জেল হাজতে পাঠায়। এ ঘটনায় জামিনের পুরো বিষয়টি তদবির ও জামিন করে সহযোগী শাহীন ।

শুধু তাই নয় জেলে থাকাকালীন সময় শাহীন আমার মেয়েকে ধর্ষনের বিষয়টি ৫লক্ষ টাকা দিয়ে আপোষ মিমাংসার জন্য চাপ দেয় বলে জানায়, ধর্ষিতার মা নার্গিস। শাহীনকে ধরলে বিস্তারিত জানা যাবে বলেও জানায় নার্গিস।

পরিশেষে তিনি বলেন, পাষন্ড পিতা কতৃক আমার মেয়ে ধর্ষণের উপযুক্ত বিচার চাই। পাশাপাশি তার সহযোগী শাহীনসহ অন্যান্যদের সকল কু-কর্মের শাস্তির দাবি জানায় ধর্ষিতার মা ও বোনেরা।

উল্লেখ্য, গত অনুমানিক ছয় মাস পূর্বে রাজশাহী নগরীর রাজপাড়া থানাধিন সিলিন্দা এলাকায় নিজ নাবালিকা (১৪) মেয়েকে গলায় ছুরি ধরে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে লম্পট ও কসাই বাবা। এ ঘটনা কাউকে বলেল জবাই করে হত্যার হুমকি দেন পিতা নজরুল কসাই। পরে নাবালিকা অন্তঃসত্বা হয়ে পড়লে মেয়ের ভবিষ্যত আর লজ্জা ঢাকতে গোপনে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে বাচ্চা নষ্ট করায় নাবালিকার মা নার্গিস। 

মতিহার বার্তা ডট কম  ১৫  ফেব্রুয়ারি ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *