শিরোনাম :
আরএমপি পুলিশের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত চারঘাটে গাঁজা- সহ ২জন মাদক কারবারীকে গ্রেফতার রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ১৯ রাজশাহী বোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষায় বসছে এক লাখ ৩৮ হাজার ১৫৭ শিক্ষার্থী রাজশাহীতে জমেছে পশুহাট, লাখের নিচে মিলছে না কোরবানিযোগ্য গরু দ্রুত সময়ে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ বিষয়ে রাসিকের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত রোদে পোড়া কালচে ত্বক নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন? ঘরোয়া টোটকা দিচ্ছেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া তেল বেশি গরম করলে কি খাদ্যগুণ চলে যায়? কী বলছেন পুষ্টিবিদ‌রা? বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচের আগে ধাক্কা পাকিস্তানে, চোটে বাদ অবসর ভেঙে ফেরা ক্রিকেটার সিঙ্গাপুর, হংকংয়ের পর এ বার ভারতের মশলা নিষিদ্ধ করল পড়শি ‘বন্ধু’ দেশ
সর্বহারা পরিচয় দিয়ে রাবির দুই শিক্ষককে প্রাণনাশের হুমকি

সর্বহারা পরিচয় দিয়ে রাবির দুই শিক্ষককে প্রাণনাশের হুমকি

রাবি প্রতিনিধি: রিচয় দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই শিক্ষককে প্ররাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ফোন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও সৈয়দ আমীর আলী হলের প্রাধ্যক্ষ ড. আমিনুল ইসলাম এবং দর্শন বিভাগের অধ্যাপক মোতাছিম বিল্লাহকে এ হুমকি দেয়া হয়।

এ ঘটনায় নগরীর মতিহার থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই দুই শিক্ষক।
ড. আমিনুল ইসলামের জিডির কপি থেকে জানা যায়, সর্বহারা পরিচয় দিয়ে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা ৫২ মিনিটে তাকে ফোন করে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি। ওই ব্যক্তির ব্যবহৃত মোবাইল নং-০১৭২৫-৬৬৪৯৭২।

তবে প্রতিবেদক ওই নাম্বারে ফোন দিলে নম্বরটি ইনভ্যালিড দেখায়। এর আগে ২০১৫ সালে একইভাবে ড. আমিনুল ইসলামকে হুমকি দেয়া হয়। ওই ঘটনা তাৎক্ষণিক পুলিশকে জানিয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন তিনি।

ড. আমিনুল ইসলাম বলেন, আমাকে ফোন দিয়ে বলা হয় দীর্ঘদিন থেকে আপনি টার্গেটে আছেন। কিডন্যাপ করে মেরে ফেলা হবে আপনাকে। কিন্তু আপনি নম্রভদ্র মানুষ তাই আর্থিক সমঝোতা করতে চাচ্ছি।

কত টাকা দেবেন বলেন? আমি বলেছি কোনো টাকা দিতে পারবো না। আপনি যা ইচ্ছা করে নেন। এ ঘটনায় নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় রয়েছি। যারা এই ঘটনায় জড়িত তাদেরকে দ্রুত খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুহতাসিম বিল্লাহ বলেন, একই দিন সন্ধ্যা ৭টা ৬ মিনিটে আমাকে ফোন দিয়ে সর্বহারা কমান্ডার মহিউদ্দিন পরিচয় দেয়। এরপর টার্গেটে আছি জানিয়ে সমঝোতা করবে বলে অর্থ দাবি করে।

আমি বলি ছা পোষা মানুষ বলে টাকা দিব না। এরপর দেখে নেয়া হবে এবং প্রাণে মেরে ফেলা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানানো হয়নি। প্রক্টরকে জানাবো। নিরাপত্তার বিষয়টি তারা দেখবেন।

মতিহার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইজন শিক্ষককে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই দুই শিক্ষক থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। ঘটনার তদন্ত চলছে।

মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই দুই শিক্ষক থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। ঘটনার তদন্ত চলছে।

মতিহার বার্তা ডট কম ০২ মার্চ ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply