শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ১০লাখ টাকার হেরোইন-সহ ৩জন মাদক কারবারী গ্রেফতার নগরীর তালাইমারীতে গাঁজা কারকারী মল্লিক গ্রেফতার রাজশাহীতে প্রস্তাবিত বঙ্গবন্ধু রিভার সিটি নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রুয়েটকে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রুপান্তর করতে হলে সকল ক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা জরুরী চিপস্ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ চেষ্টা: আসামি নাইম গ্রেফতার এইচএসসি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে আরএমপি’র নোটিশ জারি তানোরে ক্লুলেস হত্যা মামলার পলাতক আসামি ইকবাল গ্রেফতার কৃষিতে বির্পযয়ের আশঙ্কা তানোরে চোরাপথে আশা মানহীন সারে বাজার সয়লাব বাঘায় বাবুল হত্যা মামলায় চেয়ারম্যানসহ ৭ জনকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ সিংড়ায় ক্যান্সারে আক্রান্ত ২২ ব্যক্তির মাঝে চেক বিতরণ
বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল পুণ্যগ্রাম উড়ল একের পর এক বাড়ির ছাদ

বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল পুণ্যগ্রাম উড়ল একের পর এক বাড়ির ছাদ

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল  পুণ্যগ্রামের  বীরভূম। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে দুটি বাড়ির ছাদ উড়ে যায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয় ওই এলাকায়। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে লাভপুর থানা এলাকার পুণ্যগ্রামের। ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশবাহিনী একটি দল। কি কারণে এই ঘটনা তা জানতে ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এখনও পর্যন্ত হতাহতের কোনও খবর নেই।

জানা গিয়েছে, বাড়িগুলিতে বেআইনি আতোস বাজি তৈরি হত বলে পুলিশের প্রাথমিক ধারনা। পুণ্যগ্রামে ওই বেআইনি আতোস বাজি কারখানায় মজুত ছিল গ্যাস সিলিন্ডার। সেখান থেকে গ্যাস লিক করে প্রবল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে মজুত আতোস বাজি ও বারুদে। সেখানে প্রচুর তৈরি বাজি ও বারুদ মজুত ছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটা ছিল যে অনেক দূর থেকে বিস্ফোরনের শব্দ শোনা যায়।

শুধু তাই নয়, দুটি বাড়ির ছাদও উড়ে যায়। উড়ে গিয়েছে পাশের একটি কাঁচা বাড়িও। পুড়ে গিয়েছে বাড়ি দু’টির যাবতীয় সরঞ্জাম। বিস্ফোরণের শব্দে আতঙ্ক ছড়ায় এলাকায়। গ্রামবাসীরাই পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেস্টা করে প্রাথমিক ভাবে। পরে দমকল বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে কীভাবে পুলিশের চোখকে ধুলো দিয়ে দিনের পর দিন বেআইনি ভাবে আতোস বাজির কারখানা চলত তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। এমনকি পুলিশের ভূমিকাও প্রশ্নের মুখে।

মতিহার বার্তা ডট কম ০৪ মার্চ ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply