শিরোনাম :
সাধারণ মানুষ সমাবেশ প্রত্যাখান করেছে, রাসিক মেয়র লিটন রাজশাহী নগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির গণসমাবেশ শুরু কাজ হল না বিষেও! আসামির মৃত্যু নিশ্চিত করতে ভয়ঙ্কর পন্থা নিলেন জেল কর্তৃপক্ষ সঙ্গ পেতে মহিলাকে নিয়ে কলকাতার হোটেলে, প্রতিশ্রুতি মতো টাকা না দেওয়ায় ধৃত ৩ বাংলাদেশি প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে এখন লজ্জায় মুখ দেখাতে পারছেন না স্পেনের কোচ, কেন? বদলের ব্রাজিলে নজিরের মুখে দাঁড়িয়ে আলভেস, পেলেকে শুভেচ্ছা জানিয়ে নামছে সেলেকাওরা বিশ্বকাপে নেমারের খেলার সম্ভাবনা নিয়ে এ বার মুখ খুললেন তাঁর বাবা রাজশাহীতে আনোয়ার হোসেন উজ্জলের নেতৃত্বে হাজার হাজার মানুষের মিছিল অনুষ্ঠিত শীত উপেক্ষা করে খোলা মাঠে রাত কাটালো বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে যেতে পথে পথে বাধা
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দুই এমপি’র শপথ ঐতিহাসিক ৭ মার্চেই

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দুই এমপি’র শপথ ঐতিহাসিক ৭ মার্চেই

মতিহার বার্তা ডেস্ক :  ঐতিহাসিক ৭ মার্চের দিনেই বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত দুই সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর ও মোকাব্বির খানের শপথ অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি শুরু করেছে সংসদ সচিবালয়। একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত ওই দুই সদস্যের লিখিত আগ্রহ অনুযায়ী ওইদিন বেলা ১১টায় সংসদ ভবনে স্পিকারের দপ্তরে শপথ অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য সংসদ সচিবালয়ের আইন শাখাকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, স্পিকারের নির্দেশনা অনুযায়ী ইতোমধ্যে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। আজ রবিবার স্পিকারের দপ্তর থেকে ওই দুই এমপিকে শপথ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি পাঠাতে বলা হয়েছে। আজকালের মধ্যেই তারা ওই চিঠি পাবেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাদেরকে শপথ পাঠ করাবেন। এরআগে গত শনিবার ৭ মার্চ শপথ গ্রহণের আগ্রহ দেখিয়ে স্পিকারকে চিঠি লেখেন আলোচিত দুই সংসদ সদস্য।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের মধ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৮জন সদস্য এখনো শপথ নেননি। এরমধ্যে ৬জন বিএনপি’র ও দুইজন গণফোরামের। ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন গণফোরাম মনোনীত ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে বিএনপি’র ধানের শীষ প্রতীক ও মোকাব্বির খান সিলেট-২ আসন থেকে গণফোরামের প্রতীক উদীয়মান সূর্য্য নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ী হন। কিন্তু তাদের জোটের ভরাডুবি হওয়ায় নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে তারা শপথ অনুষ্ঠান বর্জন করেন।সূত্র:কালের কণ্ঠ।

উল্লেখ্য, গত ৩০ জানুয়ারি একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরু হয়। এরআগে গত ৩ জানুয়ারি নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ গ্রহণ করেন। কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরুর ৯০ দিনের মধ্যে কেউ শপথ না নিলে তার আসন শূন্য হবে। বাকি ৬ জন নির্বাচিত সদস্য শপথ না নিলে আগামী ৩০ এপ্রিলের পর তাদের আসন শূন্য হবে। তবে, তারা আগ্রহ প্রকাশ করলে শপথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে বলে সংসদ সচিবালয় জানিয়েছে।

মতিহার বার্তা ডট কম ০৪মার্চ ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *