শিরোনাম :
রাজশাহীতে বালু মজুদ করতে ১০ একর জমির কাঁচা ধান সাবাড় বিশ্বের দীর্ঘতম গাড়িতে রয়েছে সুইমিং পুল, হেলিপ্যাডও ছুটির দিনে হেঁশেলে খুব বেশি সময় কাটাতে চান না? রবিবারে পেটপুজো হোক তেহারি দিয়েই দাম দিয়ে ছেঁড়া, রংচটা জিন্‌স কিনবেন কেন? উপায় জানা থাকলে নিজেই বানিয়ে ফেলতে পারেন উন্মুক্ত বক্ষখাঁজ, খোলামেলা পিঠ, ভূমির মতো ব্লাউজ় পরেই ভিড়ের মাঝে নজরে আসতে পারেন আপনিও স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য বাড়িতেই স্ক্রাব তৈরি করে ফেলতে পারেন, কিন্তু কতটা চালের গুঁড়ো দেবেন? গরমে শরীর তো ঠান্ডা করবেই সঙ্গে ত্বকেরও যত্ন নেবে বেলের পানা, কী ভাবে বানাবেন? গাজ়া এবং ইরানে হামলা চালাতে ইজ়রায়েলকে ফের ৮ হাজার কোটি টাকার অস্ত্রসাহায্য আমেরিকার! ইজ়রায়েলকে জবাব দিতে সর্বোচ্চ নেতার ফতোয়ার কথাও ভুলতে চায় ইরান, এ বার কি পরমাণু যুদ্ধ? দিনাজপুরে ড্রাম ট্রাকসহ ১০০ কেজি গাঁজা জব্দ, গ্রেপ্তার ৩
হাসপাতালের নারী রোগীকে ধর্ষণ করলো চিকিৎসক’ সহযোগিতায় নার্স

হাসপাতালের নারী রোগীকে ধর্ষণ করলো চিকিৎসক’ সহযোগিতায় নার্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে নার্সিংহোমে ভর্তি হয়েছিলেন ২৯ বছর বয়সী এক নারী। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রোগীকে রাখা হয়েছিলো আইসিইউ-তে।

কিন্তু সেই অসুস্থ নারীকেই গণধর্ষণ করলেন এক ডাক্তার ও ওয়ার্ডবয়সহ চারজন মিলে।চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মিরাট শহরে।

গত বৃহস্পতিবার প্রচণ্ড শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে মিরাটের এক নার্সিংহোমে ভর্তি হন ২৯ বছর বয়সী ওই নারী। তার ফ্যাটি লিভারের চিকিত্সা চলছিল। অবস্থার অবনতি হওয়ায় গত শনিবার তাকে আইসিইউ-তে স্থানান্তরিত করা হয়।

কিন্তু ওই দিন রাতেই তাকে ধর্ষণের চক্রান্ত করে হাসপাতালের চিকিৎসক ও ওয়ার্ডবয়রা। আর তাদের ওই অপরাধ বাস্তবায়িত করতে এগিয়ে আসে সেখানকারই এক নার্স।

শনিবার রাতে ওই নার্স রোগীকে ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে অজ্ঞান করে দেন। তারপর ওই সংজ্ঞাহীন নারীর ওপর একে একে ঝাঁপিয়ে পড়েন ডাক্তার ও ওয়ার্ডবয়সহ মোট চারজন।
রোববার সকালে জ্ঞান ফেরার পরই ওই নারী বুঝতে পারেন তিনি ধর্ষিতা হয়েছেন। পরে এ নিয়ে স্থানীয় থানায় অভিযোগ করেছেন ওই নারী।

তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, জ্ঞান ফেরার পর তিনি দেখেন তার বেডে অর্ধনগ্ন অবস্থায় শুয়ে রয়েছে এক ওয়ার্ডবয়। ওই নারীর স্বামী তখন ওই ওয়ার্ডবয়কে ধরার চেষ্টা করতেই সে পালিয়ে যায়। ইতিমধ্যে ধর্ষণের অভিযোগে ওই নার্সিংহোমের চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে এক ডাক্তারও রয়েছে।

ধরা পড়ার পর তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করেছে। তারা জানায়, ওই নারীকে নির্বিঘ্নে ঘর্ষণ করার জন্যই নার্স তাকে ঘুমের ইনজেকশন দিয়েছিল। কিন্তু অভিযুক্ত ওই নার্সকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই তিনি পলাতক রয়েছেন।

মতিহার বার্তা ডট কম  ২৬  মার্চ ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply