শিরোনাম :
সাধারণ মানুষ সমাবেশ প্রত্যাখান করেছে, রাসিক মেয়র লিটন রাজশাহী নগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির গণসমাবেশ শুরু কাজ হল না বিষেও! আসামির মৃত্যু নিশ্চিত করতে ভয়ঙ্কর পন্থা নিলেন জেল কর্তৃপক্ষ সঙ্গ পেতে মহিলাকে নিয়ে কলকাতার হোটেলে, প্রতিশ্রুতি মতো টাকা না দেওয়ায় ধৃত ৩ বাংলাদেশি প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে এখন লজ্জায় মুখ দেখাতে পারছেন না স্পেনের কোচ, কেন? বদলের ব্রাজিলে নজিরের মুখে দাঁড়িয়ে আলভেস, পেলেকে শুভেচ্ছা জানিয়ে নামছে সেলেকাওরা বিশ্বকাপে নেমারের খেলার সম্ভাবনা নিয়ে এ বার মুখ খুললেন তাঁর বাবা রাজশাহীতে আনোয়ার হোসেন উজ্জলের নেতৃত্বে হাজার হাজার মানুষের মিছিল অনুষ্ঠিত শীত উপেক্ষা করে খোলা মাঠে রাত কাটালো বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে যেতে পথে পথে বাধা
রাজশাহীতে যুবকের হাত-পায়ের রগ কর্তন: অপরাধ না করেও মামলার ২ নং আসামি !

রাজশাহীতে যুবকের হাত-পায়ের রগ কর্তন: অপরাধ না করেও মামলার ২ নং আসামি !

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী নগরীতে হাত-পায়ের রগ কেটে এক যুবককে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা।গত বুধবার ২৭ মার্চ সন্ধ্যার দিকে নগরীর ছোট বনগ্রাম এলাকার পশের একটি পেপে বাগানে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত মো: রানাকে (১৮) স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় রানার বাবা আজিজুল ইসলাম বাদি হয়ে ৮ জনের নাম উল্লেখ্য করে গত ২৮ মার্চ চন্দ্রিমা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। এই দিকে এজাহারভুক্ত ২ নং আসামি সবুজ দাবি করেন এঘটনার সাথে তিনি জড়িত নন ।

তিনি বলেন, গত ২৭ মার্চ বুধবার আমি ঘটনার দিন সন্ধ্যা থেকে নগরীর রাজপাড়া থানায় অবস্থান করছিলাম, কারন ছোট ভাই হোসাইন এর মোটর সাইকেল অটকের বিষয়ে কথা বলার জন্য।কে বা কাহারা উস্কানি দিয়ে অহত রানার বাবা আজিজুল ইসলাম কে ভুল বুঝিয়ে আমার নামে মিথ্যা মামলা করিয়েছে । এমনটাই দাবি করেন সবুজ ।

অপর দিকে অহত রানা মতিহার বার্তাকে জানান এবং শিকার করে বলেন, সবুজ  একজন ভালো ছেলে আমি তাকে চিনি এবং জানি। ঘটনাস্থলে সবুজ ছিলো না। এবং এ ঘটনায় সবুজ জরিত না। যে সময় থানায় মামলা রুজু হয় সে সময় আমি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩১ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধিন ছিলাম। কেউ উদ্দেশ্য করে আমার বাবাকে ভুল বুঝিয়ে মামলায় তার নাম অন্তরর্ভুক্ত করেছে। আমি বিজ্ঞ আদালতেও এমন বক্তব্য তুলে ধরবো।

তিনি আরোও বলেন,আমাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যার উদ্দেশ্য, গাংপাড়া এলাকার মোহন, জাহাঙ্গীর,মিঠু, বাপ্পি, তামিম ও ছোট বনগ্রাম এলাকার টুটুল, ভোদলসহ আরো অজ্ঞাত ২/৩ জন ছুরি,চাপাতি, কাটার ও পাইপ নিয়ে আমার ওপর হামলা চালায়।

সবুজের অনাকাংখিত মামলার বিষয়ে গাংপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী মোঃ টিটু,রেজা ও সোহেলসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বলেন, এটি একটি পরিকল্পিত মিথ্যা মামলা আমরা তাকে ব্যক্তিগত ভাবে চিনি, সবুজ এ ঘটনার সাথে জরিত না, অপরাধ না করে একজন ভালো ছেলেকে ফাঁসানো হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা তিব্র নিন্দা ও  প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এবং সুষ্ঠ তদন্ত করে এ নাটকিয় মামলা থেকে অব্যাহত দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ বিষয়ে চন্দ্রিমা থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ন কবির বলেন, এ ঘটনার সাথে সবুজ জরিত না থাকলে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে বিবেচনা করা হবে বলে জানান তিনি।

মতিহার বার্তা ডট কম ০৪ এপ্রিল ২০১৯

 

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *