২০০৪ সালে মোদীকে বাজপেয়ীর পরাজয়ের কথা মনে করিয়ে দিলে “ সোনিয়া

২০০৪ সালে মোদীকে বাজপেয়ীর পরাজয়ের কথা মনে করিয়ে দিলে “ সোনিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অটল বিহারী বাজপেয়ীর কথা মনে করিয়ে নরেন্দ্র মোদীর জয় নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলেন ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী৷ তিনি বল্লেন, ২০০৪ সালের পুনরাবৃত্তি ২০১৯ সালেও হতে পারে৷

বৃহস্পতিবার রায়বেরলিতে মনোনয়নপত্র জমা দেন সোনিয়া গান্ধী৷ মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখো হন ইন্দিরার পুত্রবধূ৷ সেখানে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, মোদী মোটেই অজেয় নয়৷ তিনিও হেরে যেতে পারেন৷ তখনই ২০০৪ সালের প্রসঙ্গ টেনে আনেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভানেত্রী৷ বলেন, ‘‘২০০৪ সালের কথা ভুলে গেলে চলবে না৷ বাজপেয়ীজিও নিজেকে অপরাজেয় মনে করেছিলেন৷ কিন্তু তিনি ভোটে হেরে যান৷ ইউপিএ সরকার গঠন করে৷’’

এদিন রাহুল, প্রিয়াঙ্কা ও জামাতা রবার্ট ভাদরা সঙ্গে নিয়ে রায়বেরলিতে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে আসেন সোনিয়া গান্ধী৷ তার আগে ৭০০ মিটার পথ ধরে রোড শো করেন৷ সোনিয়া গান্ধীর শোভাযাত্রায় ভিড় করেন কংগ্রেস কর্মীরা৷ তবে রোড শো’র আগে কংগ্রেসের সেন্ট্রাল অফিসে পুজো সারেন৷ পঞ্চমবার এই কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়াতে চলেছেন তিনি৷ ৬ মে পঞ্চম দফায় রায়বরেলিতে ভোটগ্রহণ৷ সোনিয়ার বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন দীনেশ প্রতাপ সিং৷ যিনি পুরানো দল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন৷

অপরদিকে সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টির জোট এই কেন্দ্রে কোনও প্রার্থীকে দাঁড় করায়নি৷ উত্তরপ্রদেশের দুটি কেন্দ্র এখনও গান্ধী পরিবারের খাসতালুক বলে পরিচিত৷ একটি রায়বরেলি৷ অপরটি আমেঠি৷ দ্বিতীয় কেন্দ্র থেকে ভোটে লড়বেন সোনিয়া পুত্র রাহুল গান্ধী৷ তাই কংগ্রেস গড়ে কোনও প্রার্থী দেয়নি সপা ও বসপার জোট৷ রায়বরেলি থেকে সোনিয়া ২০০৪, ২০০৬(উপনির্বাচন), ২০০৯ ও ২০১৪ সালে জয়ী হন৷

মতিহার বার্তা ডট কম ১১ এপ্রিল ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply