শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে জমি সংক্লান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ২ রাজশাহী মহানগরীতে ডাকাত দলনেতা গ্রেফতার রাজশাহী মহানগরীর ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করলেন রাসিক মেয়র গোদাগাড়ীতে নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিলেন জেলা প্রশাসক রাজশাহীতে নাশকতার মামলায় বিএনপির চার নেতা গ্রেপ্তার, আহত ১ মেসিরা হারুন বা জিতুন, ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতলে বেশি খুশি হবেন আর্জেন্টিনার কোচ! রান্না করা খাবার গরম করে খান? কোন খাবারগুলি দু’বার গরম করলে মারাত্মক বিপদ হতে পারে? কিশোরীর পাকস্থলীতে ৩ কেজি চুল! বৃদ্ধের পেট থেকে পাওয়া গেল ১৮৭ টি কয়েন! লাগবে না টাকা, লাগবে না কার্ড, নেই চুরির ভয়, কেনাকাটা জন্য অভিনব উপায় বেছে নিলেন যুবক
এবার দুই সন্তানের জননীকে আটকে রেখে রাতভর গণধর্ষণ

এবার দুই সন্তানের জননীকে আটকে রেখে রাতভর গণধর্ষণ

মতিহার বার্তা ডেস্ক : এবার নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায় দুই সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে আটকে রেখে রাতভর গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। বর্তমানে ওই নারী নোয়াখালী জেনারেল হাসাপাতাল চিকিৎসাধীন।

গ্রেফতাররা হলেন- উপজেলার দক্ষিণ বারগাঁও গ্রামের আশিক উল্যা মিজি বাড়ির নুর ইসলামের ছেলে আমিনুল ইসলাম মিন্টু (৩৩) ও একই গ্রামের উজির আলীর ছেলে নিজাম উদ্দিন বাচ্চু (৪২)।

ৎওই নারীর পরিবারের সদস্যরা জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নাটেশ্বর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে এক আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে বের হলেও তিনি রাতে বাড়ি ফিরেননি। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে বুধবার সকালে সোনাইমুড়ী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দৌলতপুর গ্রামের একটি পুকুর পাড় থেকে মধ্যরাতে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনাইমুড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে বৃহস্পতিবার ভোরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে ওই নারী অনেকটা অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন পরিবারের সদস্যরা।

নির্যাতনের শিকার ওই নারীর চাচা গোলাম কবির জানান, জ্ঞান ফেরার পর তার ভাতিজি জানিয়েছেন- বারগাঁও ইউনিয়নের দক্ষিণ বারগাঁও গ্রামের আশিক উল্যা মিজি বাড়ির নুর ইসলামের ছেলে আমিনুল ইসলাম মিন্টু (৩৩), একই গ্রামের উজির আলীর ছেলে নিজাম উদ্দিন বাচ্চু (৪২), আবু তাহের মাস্টার বাড়ির মৃত আলী হোসেনের ছেলে আলাউদ্দিন (৩৫), ও মাইজ্জা মিয়া বাড়ির হানিফের ছেলে মো. নুর নবী তারেক (২৮) মিন্টুর প্রবাসী বন্ধুর অব্যবহৃত বাড়িতে আটকে রেখে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল আরএমও সৈয়দ মহিউদ্দিন আব্দুল আজিম জানান , ধর্ষণের অভিযোগে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নির্যাতিতা ওই নারী শারীরিকভাবে অসুস্থ্য। পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।

নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পুলিশ দীপক জ্যোতি খিষা জানান, এ ঘটনায় নির্যাতিতার বাবা বাদী হয়ে চারজনের নাম উল্লেখ করে বৃহস্পতিবার সোনাইমুড়ি থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন। পুলিশ এ ঘটনায় এজাহার নামীয় আমিনুল ইসলাম ও নিজাম উদ্দিন নামে দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে ৩১ মার্চ নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে ছয় সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।সুত্র: জাগো নিউজ

মতিহার বার্তা ডট কম  ১৩ এপ্রিল  ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *