শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে বালু মজুদ করতে ১০ একর জমির কাঁচা ধান কর্তন রাজশাহীতে বালু মজুদ করতে ১০ একর জমির কাঁচা ধান সাবাড় বিশ্বের দীর্ঘতম গাড়িতে রয়েছে সুইমিং পুল, হেলিপ্যাডও ছুটির দিনে হেঁশেলে খুব বেশি সময় কাটাতে চান না? রবিবারে পেটপুজো হোক তেহারি দিয়েই দাম দিয়ে ছেঁড়া, রংচটা জিন্‌স কিনবেন কেন? উপায় জানা থাকলে নিজেই বানিয়ে ফেলতে পারেন উন্মুক্ত বক্ষখাঁজ, খোলামেলা পিঠ, ভূমির মতো ব্লাউজ় পরেই ভিড়ের মাঝে নজরে আসতে পারেন আপনিও স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য বাড়িতেই স্ক্রাব তৈরি করে ফেলতে পারেন, কিন্তু কতটা চালের গুঁড়ো দেবেন? গরমে শরীর তো ঠান্ডা করবেই সঙ্গে ত্বকেরও যত্ন নেবে বেলের পানা, কী ভাবে বানাবেন? গাজ়া এবং ইরানে হামলা চালাতে ইজ়রায়েলকে ফের ৮ হাজার কোটি টাকার অস্ত্রসাহায্য আমেরিকার! ইজ়রায়েলকে জবাব দিতে সর্বোচ্চ নেতার ফতোয়ার কথাও ভুলতে চায় ইরান, এ বার কি পরমাণু যুদ্ধ?
ঐক্যফ্রন্ট নয়, গণফোরামকে লাইমলাইটে নিয়ে আসাই ছিলো ড. কামালের প্রধান

ঐক্যফ্রন্ট নয়, গণফোরামকে লাইমলাইটে নিয়ে আসাই ছিলো ড. কামালের প্রধান

নিউজ ডেস্ক: গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, গণফোরাম এখন একটি জনপ্রিয় দল। এখন অনেক দল গণফোরামের সঙ্গে আছে। আমি দলের কর্মীদের আহ্বান জানাচ্ছি, যেন তারা বিভিন্ন পর্যায়ে দলের সদস্য সংগ্রহের কাজ এগিয়ে নিতে শুরু করে। গণফোরাম একটি স্বতন্ত্র দল, আমাদের দল আগামীতে দেশের মানুষের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করবে। এ সময় গণফোরামের সাংগঠনিক শক্তি বাড়াতে আগামী ২৬ এপ্রিল বিশেষ কাউন্সিল অধিবেশন আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে দলটি।

এমন প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন উঠেছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে নিজের অখ্যাত দলকে লাইমলাইটে নিয়ে আসার জন্যই ড. কামাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট দখল করেছিলো। যা তিনি ক্রমেই প্রমাণ দিচ্ছেন।

গণফোরাম থেকে নির্বাচিত দু’জন এমপির একজন সুলতান মনসুরকে বহিষ্কার করা হলেও অন্যজন মোকাব্বির খানকে বহিষ্কারে গড়িমসি করছে দলটি। গুঞ্জন উঠেছে, মোকাব্বির খানকে বহিষ্কারের বদলে সুলতান মনসুরকে যেকোন সময় দলে ফিরিয়ে নেয়া হতে পারে। কেননা, ঐক্যফ্রন্ট থেকে যতটুকু অর্জন করা সম্ভব তা ড. কামাল লুফে নিয়েছেন। গণফোরামের মতো একটি অজনপ্রিয় দলের দুজন বিজয়ী এখন সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছে।

সূত্র বলছে, ইদানিং ড. কামাল যেকোন সভায় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে কথা না বলে বরং নিজ দল গণফোরামকে গুরুত্ব দিচ্ছেন বেশি। এতে বিএনপির অভ্যন্তরে একটি গুঞ্জন চাউর হলেও তা প্রকাশ্যে আসেনি। তবে ড. কামালের এমন বৈরি আচরণ নিয়ে আড়ালে কথা বলছেন সবাই। যা অচিরেই প্রকাশ্যে ভয়াবহ রূপ নিতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য বলেন, ড. কামাল যে গেমটি খেলছে তা আমরাও বুঝি। কিন্তু তার খেলাটা ধরতে পেরেছি অনেক পরে। তিনি জাতীয় ঐক্য গঠনের মাধ্যমে নিজের সুবিধা ঠিকই করে নিয়েছেন। তিনি এ খেলায় সফল। তবে এই দিনই শেষ দিন না- ড. কামালের এটা মনে রাখা উচিত। এর বেশি কিছু বলার সময় এখনও হয়নি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সঙ্গে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত থাকা ড. কামাল ১৯৯২ সালে আওয়ামী লীগ থেকে বেরিয়ে গণফোরাম নামে নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে তিনি বিএনপিসহ অন্য কয়েকটি দলকে নিয়ে গঠন করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। নির্বাচনে এ জোট আটটি আসন পায়। বিএনপির বাকি ছয় জন শপথ না নিলেও গণফোরাম থেকে নির্বাচিত ২ জন এরইমধ্যে ড. কামালের পরামর্শে শপথ নিয়েছেন। যদিও প্রসঙ্গটি বরাবরই এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন ড. কামাল।

বাংলা নিউজ ব্যাংক

মতিহার বার্তা ডট কম  ২২ এপ্রিল ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply