শিরোনাম :
কিশোরীর পাকস্থলীতে ৩ কেজি চুল!

কিশোরীর পাকস্থলীতে ৩ কেজি চুল!

কিশোরীর পাকস্থলীতে ৩ কেজি চুল!
কিশোরীর পাকস্থলীতে ৩ কেজি চুল!

ফারহানা জেরিন: ঘটনাটি চিনের। কিশোরীটি কিছুই খেতে না পারায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচার করে তার পেট থেকে চুলের গোলা বের করেন, যার ওজন ছিল একটা আস্ত ইটের সমান। তার পর?

এক চিনা কন্যের কীর্তি শুনে নেটিজ়েনদের ঘুম উড়েছে। খেতে খেতে যদি ভুলবশত চুল পেটে চলে যায় তা হলেই অস্বস্তির শেষ থাকে না! কিশোরীর পেট থেকে মিলেছে তিন কেজি চুল! শুনতে অবাক লাগলেও ঘটনাটি সত্যিই ঘটেছে। তার পেটে চুল জমতে জমতে এমন অবস্থা হয় যে, কোনও খাবারই খেতে পারছিল না সে। নিজেই নিজের চুল ছিঁড়তে ছিঁড়তে মাথায় টাক পড়ে যায় তার।

কিছুই খেতে পারছিল না সে, তাই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচার করে তার পেট থেকে চুলের গোলা বার করেন, যার ওজন ছিল একটা আস্ত ইটের সমান। টানা দু’ঘণ্টা ধরে চলে অস্ত্রোপচার। সাউথ মর্নিং পোস্ট-এর একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী কিশোরীটি ‘পিকা’ নামক রোগে আক্রান্ত। এই রোগে আক্রান্ত রোগীরা এমন জিনিস খেয়ে ফেলেন, যা আদৌ খাবার নয়। এ ক্ষেত্রে রোগী ঘাস, মাটি, আবর্জনা, ছাই ইত্যাদি দেখলেই নিজেকে সামলাতে পারেন না, সেইগুলি খেয়ে ফেলেন।

মেয়েটি তার দাদু-দিদার সঙ্গে থাকে, তার বাবা-মা কাজের সূত্রে বাইরে থাকেন। মেয়েটির দাদু-দিদা বুঝতেও পারেননি যে, তাঁদের নাতনি এমন রোগেও ভুগতে পারে।

চিকিৎসকরা বলেন, ‘‘মেয়েটি আমাদের কাছে আসে, কারণ সে খেতে পারছিল না। নানা পরীক্ষার পর ধরা পড়ে, ওর পেটে এত পরিমাণে চুল জমে রয়েছে যে খাবার ঢোকার বিন্দুমাত্র জায়গা নেই। পাকস্থলী পুরোটাই চুলে ভরা। মেয়েটি দাদু–দিদার সঙ্গে থাকে। তাঁরা মেয়েটির এই মানসিক রোগের ব্যপারে ওয়াকিবহাল ছিলেন না। এই সমস্যা কয়েক দিনের নয়, দীর্ঘ দিন ধরে মেয়েটি এই মানসিক সমস্যায় ভুগছিল। বাবা-মা তার প্রতি আরও একটু যত্নশীল হলে বোধ হয় এই পরিস্থিতি এড়ানো যেত।’’

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply