শিরোনাম :
রাজশাহীতে বালু মজুদ করতে ১০ একর জমির কাঁচা ধান সাবাড় বিশ্বের দীর্ঘতম গাড়িতে রয়েছে সুইমিং পুল, হেলিপ্যাডও ছুটির দিনে হেঁশেলে খুব বেশি সময় কাটাতে চান না? রবিবারে পেটপুজো হোক তেহারি দিয়েই দাম দিয়ে ছেঁড়া, রংচটা জিন্‌স কিনবেন কেন? উপায় জানা থাকলে নিজেই বানিয়ে ফেলতে পারেন উন্মুক্ত বক্ষখাঁজ, খোলামেলা পিঠ, ভূমির মতো ব্লাউজ় পরেই ভিড়ের মাঝে নজরে আসতে পারেন আপনিও স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য বাড়িতেই স্ক্রাব তৈরি করে ফেলতে পারেন, কিন্তু কতটা চালের গুঁড়ো দেবেন? গরমে শরীর তো ঠান্ডা করবেই সঙ্গে ত্বকেরও যত্ন নেবে বেলের পানা, কী ভাবে বানাবেন? গাজ়া এবং ইরানে হামলা চালাতে ইজ়রায়েলকে ফের ৮ হাজার কোটি টাকার অস্ত্রসাহায্য আমেরিকার! ইজ়রায়েলকে জবাব দিতে সর্বোচ্চ নেতার ফতোয়ার কথাও ভুলতে চায় ইরান, এ বার কি পরমাণু যুদ্ধ? দিনাজপুরে ড্রাম ট্রাকসহ ১০০ কেজি গাঁজা জব্দ, গ্রেপ্তার ৩
চিলমারীতে ভাগ্নিকে খুঁজতে এসে গণধর্ষণের শিকার মামী! দুই ধর্ষক গ্রেফতার

চিলমারীতে ভাগ্নিকে খুঁজতে এসে গণধর্ষণের শিকার মামী! দুই ধর্ষক গ্রেফতার

মতিহার বার্তা ডেস্ক : কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় ভাগ্নিকে খুঁজতে এসে এক মামী (৩২) গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় রঞ্জু মিয়া (৫২) ও জেলহক (৪৫) নামের দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

পরে ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে চিলমারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।আজ শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, বুধবার দুপুরে ভুক্তভোগী নারীসহ আরও তিনজন তাদের এক ভাগ্নিকে খুঁজতে পূর্ব-পরিচিত রঞ্জু মিয়ার কাছে টাঙ্গাইল থেকে চিলমারী আসেন।

তাদের ভাগ্নি গত ২৮ মার্চ পরকীয়ার টানে দিনাজপুরের হারুন মিয়ার (৪৫) সঙ্গে চিলমারীতে পালিয়ে আসেন। এর আগে একই ঘটনায় রঞ্জু মিয়া তাদের সহায়তা করেছিলেন। দ্বিতীয়বার তারা রঞ্জু মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করে চিলমারীতে আসেন।বুধবার সন্ধ্যায় ভাগ্নিকে উদ্ধার করে দেওয়ার কথা বলে জেলহক মাঝির নৌকায় তাদেরকে চিলমারীর কড়াই বরিশাল চরে নিয়ে যান রঞ্জু।

মিয়া সেখানে রঞ্জু চালাকি করে পরিবারের বাকি তিনজনকে অপেক্ষা করতে বলে ওই নারীকে তার ভাগ্নির কাছে নিয়ে যাচ্ছেন মর্মে অন্য এক জায়গায় নিয়ে যান।সেখানে নিয়ে রঞ্জু ও জেলহক ওই নারীকে ধর্ষণ করেন। পরে তারা মুঠোফোনে আরও দুই সহযোগীকে ডেকে নিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণ করান।

সেই সঙ্গে ঘটনা চেপে না গেলে ওই নারীকে হত্যার ভয় দেখান তারা।পরদিন ভোরে ৯৯৯ নম্বরে সহযোগিতা চেয়ে পুলিশকে ফোন করেন ভুক্তভোগী নারী। পরে পুলিশ সুপারের নেতৃত্ব বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে রঞ্জু ও জেলহককে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘ভিকটিম চিলমারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। পুলিশ বাকি দুই ধর্ষকদের খুঁজতে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করছে।’সুত্র: আমাদের সময়

মতিহার বার্তা ডট কম ২৭ এপ্রিল ২০১৯

 

 

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply