শিরোনাম :
আরএমপি পুলিশের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত চারঘাটে গাঁজা- সহ ২জন মাদক কারবারীকে গ্রেফতার রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ১৯ রাজশাহী বোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষায় বসছে এক লাখ ৩৮ হাজার ১৫৭ শিক্ষার্থী রাজশাহীতে জমেছে পশুহাট, লাখের নিচে মিলছে না কোরবানিযোগ্য গরু দ্রুত সময়ে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ বিষয়ে রাসিকের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত রোদে পোড়া কালচে ত্বক নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন? ঘরোয়া টোটকা দিচ্ছেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া তেল বেশি গরম করলে কি খাদ্যগুণ চলে যায়? কী বলছেন পুষ্টিবিদ‌রা? বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচের আগে ধাক্কা পাকিস্তানে, চোটে বাদ অবসর ভেঙে ফেরা ক্রিকেটার সিঙ্গাপুর, হংকংয়ের পর এ বার ভারতের মশলা নিষিদ্ধ করল পড়শি ‘বন্ধু’ দেশ
রাজশাহীর বাঘায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত মাদক ব্যবসায়ী

রাজশাহীর বাঘায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত মাদক ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর বাঘায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জিয়ারুল হোসেন কালু (৩৯) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। গতকাল (বৃহস্পতিবার) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার সিমান্ত এলাকা আলাইপুর রহমানের মোড় নামক এলাকার আমবাগানে এই ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনা ঘটে। নিহত কালু পাকুড়িৎয়া এলাকার মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।

পুলিশ জানায়, বৃস্পতিবার রাত দুইটার দিকে উপজেলার কেশবপুর মৌজার রহমানের মোড় (হাজামপাড়া মোড়) আব্দুল হামিদের আমবাগান এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির শব্দ শুনে পুলিশের কয়েকটি দল সেখানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশ কে লক্ষ্য করে হামলা করে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশের হাতে ধরা পড়ার আশঙ্কায় সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়া রাজশাহী সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব, সহকারি পুলিশ সুপার পুঠিয়া চারঘাট সার্কেল নূরে আলম সিদ্দিকি এবং বাঘা থানার ওসি মহসীন আলীসহ আরও ছয়জন পুলিশ সদস্য আহত হয়।

এক পর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ একজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ২-রাউন্ড গুলি, একটি ম্যাগাজিন ও ৫৩ বোতল নিষিদ্ধ ঘোষিত ভারতীয় ফেন্সিডিল জব্দ করা হয়।

পরে তাকে উদ্ধার করে টহল পুলিশের গাড়িতে দ্রুত বাঘা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক কালুকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত পুলিশ সদস্যদের হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। উপস্থিত লোকজন মৃত কালুকে এলাকার চিহ্নিত শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যাবসায়ী হিসেবে সনাক্ত করেন।

এ ব্যাপারে রাজশাহী পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ জানান, পুলিশের রেকর্ডে দেখা যায়, নিহত কালুর নামে অস্ত্র,মাদক ও চোরা কারবারী আইনে ১০টি মামলা রয়েছে। সে দির্ঘদিন থেকে বাঘার সিমান্ত এলাকায় মাদকের রাজত্ব কায়েম করে আসছিল।
এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত নিহত কালুর লাশ ময়না তদন্তের জন্য বাঘা থানার মাধ্যমে রামেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করার প্রস্তুতি চলছিল।

মতিহার বার্তা ডট কম  ১০  মে ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply