শিরোনাম :
মাছ-মাংস তো অনেক খেয়েছেন, এ বার কবাব বানিয়ে ফেলুন দই দিয়ে, রইল রেসিপি

মাছ-মাংস তো অনেক খেয়েছেন, এ বার কবাব বানিয়ে ফেলুন দই দিয়ে, রইল রেসিপি

মাছ-মাংস তো অনেক খেয়েছেন, এ বার কবাব বানিয়ে ফেলুন দই দিয়ে, রইল রেসিপি
মাছ-মাংস তো অনেক খেয়েছেন, এ বার কবাব বানিয়ে ফেলুন দই দিয়ে, রইল রেসিপি

ফারহানা জেরিন: বেশির ভাগেরই ধারণা কবাব মানেই আমিষ। তাই নিরামিষ খাবার খান যাঁরা, তাঁরা এই কবাবের স্বাদ থেকে বঞ্চিত। আলু বা পনির দিয়ে তৈরি কবাব পাওয়া গেলেও দইয়ের কবাব কিন্তু সে সবের থেকে আলাদা।

কবাবের নাম শুনলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে মুরগি, মাছ কিংবা চিংড়ির ছবি। রেশমি থেকে গিলৌটি, তুন্ডে থেকে আফগানি— কবাবের তালিকায় কী নেই? পনির কিংবা আলু দিয়ে তৈরি কবাব পাওয়া গেলেও বেশির ভাগেরই ধারণা কবাব মানেই আমিষ। তবে দই দিয়েও যে কবাব তৈরি করা যায়, সে কথা হয়তো অনেকেই জানেন না। যাঁরা নিরামিষ খাবার খেয়ে থাকেন, তাঁদের কাছে বেশ জনপ্রিয় এই পদ। কী ভাবে তৈরি করবেন এই কবাব? রইল রেসিপি।

উপকরণ

দই: ১ কেজি

পনির: আধ কাপ

পাউরুটির গুঁড়ো: আধ কাপ

বেসন: আধ কাপ

কাঁচা লঙ্কা কুচি: ৩-৪ টেবিল চামচ

ধনে পাতা কুচি: আধ কাপ

ভাজা পেঁয়াজ: আধ কাপ

আদা বাটা: ১ টেবিল চামচ

রসুন বাটা: ১ টেবিল চামচ

কাজুবাদাম কুচি: ১ টেবিল চামচ

কিশমিশ কুচি: ১ টেবিল চামচ

গরম মশলা গুঁড়ো: আধ চা চামচ

গোলমরিচ গুঁড়ো: ১ চা চামচ

জিরে গুঁড়ো: ১ টেবিল চামচ

এলাচ গুঁড়ো: আধ চামচ

নুন: স্বাদ অনুযায়ী

মিষ্টি: স্বাদ অনুযায়ী

প্রণালী:

১) প্রথমে দই থেকে সব জল ঝরিয়ে নিতে হবে। শুকনো, পাতলা সুতির কাপড়ে দই ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা বেঁধে ঝুলিয়ে রাখুন।

২) এ বার একটি পাত্রে জল ঝরানো দই, অন্য সব উপকরণ দিয়ে ভাল করে মেখে নিন।

৩) এ বার একটি প্লেটে পাউরুটির গুঁড়ো ছড়িয়ে রাখুন।

৪) দইয়ের মণ্ড থেকে ছোট ছোট অংশ নিয়ে কবাবের আকারে গড়ে নিন।

৫) এ বার কবাবগুলির দু’পিঠে ভাল করে পাউরুটির গুঁড়ো মাখিয়ে নিন।

৬) পাউরুটির গুঁড়ো মাখানোর পর সব ক’টি কবাব প্লেটে সাজিয়ে ফ্রিজে তুলে রাখুন।

৭) আধ ঘণ্টা পর ফ্রিজ থেকে বার করে ডুবো তেলে ভেজে তুলে নিন। ধনেপাতা, পুদিনা পাতার চাটনি বা সস্‌ দিয়ে গরম গরম কবাব পরিবেশন করুন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply