শিরোনাম :
প্রেমিকার বাড়ির সামনে বিষপানে প্রেমিকের মৃত্যু; বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য ‘শাড়ি ক্যানসার’ কেন হয়? তার উপসর্গই বা কী? জানালেন চিকিৎসক ডায়াবেটিকেরাও ভাত খেতে পারেন, তবে মানতে হবে কিছু নিয়ম মল্লিকার সঙ্গে চুমু বিতর্ক, মুখ দেখাদেখি বন্ধ কুড়ি বছর, সাক্ষাৎ পেয়ে কী করলেন ইমরান? ক্যাটরিনার জন্যই সলমনের সঙ্গে সম্পর্কে দূরত্ব, ইদে স্বামীকে নিয়ে ভাইজানের বাড়িতে আলিয়া! রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ২৬ ১৬ মাসের মেয়েকে বাড়িতে একা রেখে ছুটি কাটাতে যান মা, না খেয়ে, জল না পেয়ে মৃত্যু! সাজা যাবজ্জীবন রাজশাহীতে ট্রাকে টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি, আটক ২ পুঠিয়ায় পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে গ্রেফতার ৩ ঈদের সাথে যুক্ত হওয়া নববর্ষের উচ্ছ্বাসে বিনোদন স্পট পরিপূর্ণ
২০ হাজার টাকা ঘুষ না পেয়ে ছেলের সামনেই বাবার হাটু ভাঙলো পুলিশ

২০ হাজার টাকা ঘুষ না পেয়ে ছেলের সামনেই বাবার হাটু ভাঙলো পুলিশ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি: রাজশাহীর দুর্গাপুরে ২০ হাজার টাকা ঘুষ চেয়ে না পেয়ে সাইদুল ইসলাম নামের এক ব্যাক্তির পা ভেংগে দিয়েছে দুর্গাপুর থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) হাফিজ। এতেই ক্ষান্ত হননি এএসআই হাফিজ। ছেলের সামনেই সাইদুল ইসলামকে অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন সাইদুল ইসলাম। সোমবার রাত ১০ টার দিকে এ ঘটনার পর দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে সাইদুল ইসলামকে।

সাইদুল ইসলাম অভিযোগ করেন, তার ছেলের বউ তাদের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। ওই অভিযোগের কারণে সোমবার রাতে তার ছেলে আসাদুল ইসলামকে গ্রেফতার করে থানায় না নিয়ে হোজা অনন্তকান্দি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে যাওয়া হয়। ছেলেকে ছাড়াতে সেখানেই যান সাইদুল ইসলাম। এ সময় ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করে এএসআই হাফিজ। ঘুষের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এএসআই হাফিজ। এ সময় ৯’শ টাকা পকেট থেকে বের করে এএসআই হাফিজকে দেন সাইদুল ইসলাম। এতে সন্তুষ্ট হতে পারেননি এএসআই হাফিজ। বাঁশের লাঠি দিয়ে ছেলের সামনেই তার বাম পায়ে আঘাত করা হয়। এতে সাইদুল ইসলামের বাম হাটু ভেংগে যায়।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার ওসি আব্দুল মোতালেবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কিছু জানেন না বলে দাবি করেন। এএসআই হাফিজের সাথে কথা বলা হলে তিনি ঘুষ দাবি ও মারপিটের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

মতিহার বার্তা ডট কম – ১ জুন- ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply