শিরোনাম :
প্রেমিকার বাড়ির সামনে বিষপানে প্রেমিকের মৃত্যু; বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য ‘শাড়ি ক্যানসার’ কেন হয়? তার উপসর্গই বা কী? জানালেন চিকিৎসক ডায়াবেটিকেরাও ভাত খেতে পারেন, তবে মানতে হবে কিছু নিয়ম মল্লিকার সঙ্গে চুমু বিতর্ক, মুখ দেখাদেখি বন্ধ কুড়ি বছর, সাক্ষাৎ পেয়ে কী করলেন ইমরান? ক্যাটরিনার জন্যই সলমনের সঙ্গে সম্পর্কে দূরত্ব, ইদে স্বামীকে নিয়ে ভাইজানের বাড়িতে আলিয়া! রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ২৬ ১৬ মাসের মেয়েকে বাড়িতে একা রেখে ছুটি কাটাতে যান মা, না খেয়ে, জল না পেয়ে মৃত্যু! সাজা যাবজ্জীবন রাজশাহীতে ট্রাকে টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি, আটক ২ পুঠিয়ায় পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে গ্রেফতার ৩ ঈদের সাথে যুক্ত হওয়া নববর্ষের উচ্ছ্বাসে বিনোদন স্পট পরিপূর্ণ
রাজশাহীর পুঠিয়ায় উপজেলায় ফসলী জমিতে পুকুর খননের অভিযোগ

রাজশাহীর পুঠিয়ায় উপজেলায় ফসলী জমিতে পুকুর খননের অভিযোগ

আরিফুল রুবেল: নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ কর্তৃক টেন্ডারের মাধ্যমে রাজশাহীর পুঠিয়ায় ফসলী জমির শ্রেণী পরিবর্তন ছাড়াই পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে। এতে এলাকাবাসীকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এলাকাবাসী জানায়, রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার গোবিন্দনগর বিলে সাইদুর রহমানের কৃষি জমিতে প্রায় ২ মাস থেকে ৩ টি ভেকু (স্কেভেটর) দিয়ে পুকুর খনন করছে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

একটি ভেকু মেশিন দিয়ে দিন-রাত ফসলী জমি খনন করে পুকুর তৈরি করে দিচ্ছে। সেখানে প্রায় ২০ বিঘা ফসলী জমিতে মাটি কাটার কাজ চলছে। আর ৮টি ইঞ্জিন চালিত ট্রলি দিয়ে দিন-রাত সমানে মাটি নিয়ে যাওয়ার ফলে এলাকায় পরিবেশ ও রাস্থা-ঘাট নষ্ট হচ্ছে। ধুলা-বালি কারণে এলাকার মানুষ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি’র রাজশাহী অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান জানান, পাবনার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এ জেড এন্ড আরটি রুপালী ট্রেডাস টেন্ডার প্রাপ্ত হয়।

কিন্তু সেখানে সাব-ঠিকাদার এই কাজ করছে। আর তারা কোথায় থেকে মাটি আনছে সেটা জানিনা। কিন্তু নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর পুঠিয়া জোনাল অফিসের সাব-জোন অফিসের খাল ভরাট করে ভবন নির্মান হবে।

নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর পুঠিয়া জোনাল অফিসের ডিজিএম এস.এম নাসির উদ্দিন জানান, মাটি ভরাট ও পুকুর খনন বিষয়টি নিবার্হী প্রকৌশলী, রাজশাহীর অফিসের ব্যাপার। তাই বিষয়টি আমার জানা নাই। আর ফসলী জমি খনন করে খালে মাটি ভরাটের বিষয়টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ও জমির মালিকের বিষয়।

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নায়েব উদ্দিন জানান, এই পুকুর খনন থানার ওসি সাহেবের নির্দেশে হচ্ছে। আমরা এখান থেকে মাটি নিয়ে গিয়ে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর পুঠিয়া জোনাল অফিসের সাব-জোন অফিসের খাল ভর্তি করছি।

থানার অফিসার ইনচার্জ সাকিল উদ্দিন আহমেদ জানান, এ বিষয়ে আমার জানা নাই। উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বলেন। তিনি ব্যবস্থা নেবেন। কেউ যদি আমার কথা বলে সেটা ঠিক বলেনি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ওলিউজ্জামান জানান, ফসলী জমিতে পুকুর খননের নিয়ম নাই। আর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান যদি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি’র টেন্ডার প্রাপ্ত হয়ে কাজ করে সেখানে তাদের মাটি ক্রয় করে দিতে হবে। বিষয়টি আমার জানা নাই তবে খতিয়ে দেখছি।

মতিহার বার্তা ডট কম  ১৭ জুন  ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply