শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জে ছিনতাই চক্রের সক্রিয় ৫জন সদস্য গ্রেফতার চকলেটের প্রলোভনে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা রুয়েট কেন্দ্রে ১ম বর্ষ সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন মেস মালিকদের কাছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অসহায় রাজশাহীতে মাদক কারবারী, মাদকসেবী, ও ২জন পলাতক আসামী-সহ গ্রেফতার- ৮ বেলপুকুর থানার অভিযানে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্তসহ ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার শাহমখদুম থানার অভিযানে কিশোর গ্যাংয়ের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আত্মসাত; ভুয়া এনএসআই কর্মকর্তা গ্রেফতার চাকরির প্রলোভনে ভারতে গিয়ে আটকে পড়া ১০ বাংলাদেশি দেশে ফিরছেন সরিষার বাম্পার ফলন, দাম না পেয়ে হতাশ কৃষক
মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করায় রাজপাড়া থানা পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার

মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করায় রাজপাড়া থানা পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার

মতিহার বার্তা ডেস্ক : রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে নানান কৌশলে মাদক ব্যবসা চলে তা হয়তো কম বেশি সবারই জানা। তথ্য ও প্রমাণের ভিত্তিতে বিভিন্ন সময় মাদকের অসংখ্য আখড়ায় অভিযান চালায় পুলিশ।

পুলিশ ও ঘটনা সূত্রে জানা গেছে, নগরীতে মাদক বিরোধী অভিযানের ধারাবাহীকতায় গত ১৬ই জুন রবিবার ভোর ৬ টার দিকে রাজশাহী কোর্ট চত্বরের পার্শে ফুড অফিসের সামনে মাদকের স্বর্গরাজ্য খ্যাত গুড়িপাড়া এলাকার মাদক ব্যবসায়ী বিষুর ছেলে একাধিক মাদক মামলার আসামী সুজন (৩৬) কে তার তিন চাকার অটো রিক্সাসহ রাস্তায় পথ রোধ করে রাজপাড়া থানার এএসআই বেলাল ও সঙ্গীয় ফোর্স।

এ সময় তাকে তল্লাশি করলে তার কাছ থেকে ৪ গ্রাম হিরোইন পাওয়া গেলে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন এএসআই বেলাল। পরে বিভিন্ন মাধ্যম দিয়ে মাদক ব্যবসায়ী সুজনকে ছাড়াতে মরিয়া হয়ে উঠেন কিছু নামধারী রাজনৈতিক নেতার সিন্ডিকেট। তাদের পক্ষ থেকে এএসআই বেলালকে টাকা দিয়ে আপস ও মিমাংসার প্রস্তাব দেয়া হলেও এএসআই বেলাল তাতে কর্ণপাত না করেই তার দায়িত্ব পালন করে মাদক ব্যবসায়ীর নামে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করেন।

মামলার বাদি হন থানার এসআই হায়দার আলী খান। ফলে ঐ মাদক ব্যবসায়ীর নেতৃত্বে থাকা নামধারী কিছু রাজনৈতিক নেতাদের রসানলে পড়ে এসআই হায়দার আলী খান ও এএসআই বেলাল ৷ মাদক ব্যবসায়ী সুজনকে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করায় তারা গত সোমবার বিভিন্ন ভাবে এএসআই বেলালকে হুমকি ধামকি দেয় একটি চক্র। সেই সাথে তার নামে মিথ্যে সংবাদ প্রকাশ করার হুমকিও দেন এই মাদক ব্যবসায়ীর সহযোগী একটি সিন্ডিকেট।

বিষয়টি জানতে রাজপাড়া থানার এএসআই বেলালের মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি নির্বাচন ডিউটি করছি। গত ১৬ই জুন রবিবার ভোর ৬ টার দিকে রাজশাহী কোর্ট চত্বরের পার্শে ফুড অফিসের সামনে থেকে একাধিক মাদক মামলার আসামী মাদক ব্যবসায়ী সুজন (৩৬) কে ৪ গ্রাম হেরোইন সহ আটক করা হয়। আটক করার পর থেকে কিছু সাংবাদিক পরিচয়ে ও মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট সদস্যরা আমাকে বিভিন্ন ভাবে ভয় ভিতি প্রদর্শন করছেন। সেই সাথে আমাকে ফোন দিয়ে আমার নামে মিথ্যে সংবাদ প্রকাশের হুমকিও দিয়ে যাচ্ছে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে। বিষয়টি আমি আমার থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি স্যারকে অবগত করেছি।

এ বিষয়ে রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি হাফিজুর রহমান বলেন, গত রবিবার রাজশাহী ফুড অফিসের সামনে থেকে ৪ গ্রাম হেরোইনসহ আটক হওয়া গুড়িপাড়া এলাকার বিষুর ছেলে মাদক ব্যবসায়ী সুজন কে আটক করে থানা পুলিশের একটি টিম। মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের ঘটনায় থানার এএসআই বেলালকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তার মোবাইল ফোনে মিথ্যে সংবাদ প্রকাশের হুমকি দিচ্ছে। বিষয়টি আমিও শুনেছি।

তিনি আরো বলেন, যদি আমার থানার কোন পুলিশ সদস্য কোন অনিয়ম বা অনৈতিক কোন লেনদেন করে থাকে তাহলে তার শাস্তি হবে। তবে আটক হওয়া সুজনের নামে ৫/৬টি চলমান মাদক মামলা রয়েছে। তার পরিবারের সকল সদস্যর নামে রয়েছে একাধিক মাদক মামলা। এমন মাদক ব্যবসায়ীর পরিবারের সদস্যদের সাথে কোন সাংবাদিক, পুলিশ, রানৈতিক নেতৃবৃন্দদের সাক্ষতা রাখা উচিৎ নয়। ওই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করার পরে বিভিন্ন মাধ্যে থানা পুলিশের নামে মিথ্যা সংবাদ ছড়াচ্ছে বলে জানান ওসি। সুত্র: পদ্মা টাইম

মতিহার বার্তা ডট কম  ১৯ জুন ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply