চট্টগ্রামে গার্মেন্টস্ কর্মীকে গণধর্ষণ : আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দু’যুবকের

চট্টগ্রামে গার্মেন্টস্ কর্মীকে গণধর্ষণ : আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দু’যুবকের

মতিহার বার্তা ডেস্ক : চট্টগ্রামে এক গার্মেন্টস কর্মীকে ৪ যুবকের গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে দুই যুবক।শনিবার বিকেলে চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. আল ইমরান খানের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় জড়িত অপর দুই জন আত্মগোপনে রয়েছে। তাদেরকেও গ্রেপ্তারের অভিযান চলছে।

সিএমপির সদরঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নেজাম উদ্দীন খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি বলেন, আগেরদিন (শুক্রবার) সন্ধ্যা ৭টার দিকে নগরের উত্তর নালাপাড়া একটি বাসায় ওই যুবতীকে জিম্মি করে ৪ যুবক গণধর্ষণ করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে সেই তাকে উদ্ধার করে। একই সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয় দুই যুবককে।

গ্রেপ্তাররা হলেন- কুমিল্লার মুরাদনগর থানার হায়দারাবাদ এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে মো. শাহ আলম ওরফে রাসেল (২০) ও একই জেলার তিতাস থানার শোলো কান্দি বড় বাড়ির শফিকুল ইসলামের ছেলে মো. হানিফ (২০)।

সদরঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বলেন, শুক্রবার বিকেলে অভয়মিত্র ঘাট এলাকায় বান্ধবীকে নিয়ে বেড়াতে যান পেশায় পোশাককর্মী ওই যুবতী। সেখান থেকে সন্ধ্যায় বাসায় ফেরার পথে তাদের অনুসরণ করে রাসেল, হানিফ, নয়ন (২৫) ও আরিফ (২৪)।

‘উত্তর নালাপাড়া এলাকায় পৌছলে দুই তরুণীকে ভয় দেখিয়ে পাশের একটি বাসায় নিয়ে যায় অভিযুক্তরা। সেখান থেকে এক যুবতী পালাতে পারলেও ধর্ষণের শিকার ওই যুবতী সেখানে আটকা পড়েন। তাকে একে একে চার যুবক ধর্ষণ করে।’

রুহুল আমিন বলেন, পালিয়ে আসা যুবতীর কাছ থেকে খবর পেয়ে সদরঘাট থানা পুলিশের একটি দল মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এরপর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রাসেল ও হানিফকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর দু’জনকেও গ্রেপ্তারের প্রচেষ্টা চলছে।

মতিহার বার্তা ডট কম ০২ মার্চ ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *