শিরোনাম :
গুগল ইন্ডিয়ার ইন্ডাস্ট্রি হেড পদে বহাল হলেন বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকা ময়ূরী কঙ্গো

গুগল ইন্ডিয়ার ইন্ডাস্ট্রি হেড পদে বহাল হলেন বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকা ময়ূরী কঙ্গো

বিনোদন ডেক্স: ১৯৯৬ সালে ‘পাপা ক্যাহেতে হ্যায়’ বলিউডের অন্যতম সুপারহিট ছবি। বিশেষ করে এই ছবির গান ‘ঘর সে নিকলতে হি’ গানটি সেসময় সুপার ডুপার হিট। এই ছবির নায়িকা ময়ূরী কঙ্গোকে মনে পড়ে? ছবিতে ময়ূরী কঙ্গোর বিপরীতে দেখা গিয়েছিল অভিনেতা যুগল হংসরাজকে।

তবে শুধু পাপা ক্যাহেতে হ্যায় নয়, (১৯৯৫) জাতীয় পুরস্কারজয়ী ছবি নাসিম, (১৯৯৭) বেতাবি, (২০০০) বাদল সহ একাধিক ছবিতে ববি দেওল, রানি মুখোপাধ্যায়, চন্দ্রচূড় সিং, অনুপম খের, শক্তি কাপুর সহ একাধিক জনপ্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সঙ্গে অভিনয় করেছেন এবং দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছিলেন ময়ূরী।

তবে শুধু হিন্দি ছবিতেই নয়, হিন্দি টেলিধারাবাহিকও দেখা গেছে ময়ূরী কঙ্গোকে। ২০০০,থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত ‘কাহি কিসি রোজ’, ‘রঙ্গোলি’, ‘কুসুম’ সহ একাধিক হিন্দি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিবি।

তবে সেই ময়ূরী কঙ্গো বর্তমানে কী করছেন জানেন? শুনলে হয়ত চমকে যাবেন। সম্প্রতি গুগল ইন্ডিয়ার ইন্ডাস্ট্রি হেড পদে নিয়োগ করা হয়েছে ময়ূরীকে। হ্যাঁ ঠিকই শুনছেন।

তবে ময়ূরী কঙ্গো শুধু ভালো অভিনেত্রীই নন, অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি একজন মেধাবী ছাত্রীও বটে। অভিনয় করতে করতেই মাঝে কিছুটা বিরতি নিয়ে ময়ূরী কানপুর আইআইটি ভর্তি হন। ২০০৩ সালে পুরোপুরি অভিনয় থেকে সরে আসেন। এনআরআই ব্যবসায়ী আদিত্য ধীলনকে বিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস শুরু করেন।

নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির অধীন একটি কলেজ থেকে মার্কেটিং ও ফাইনান্স নিয়ে MBA করেন। পরবর্তীকালে ময়ূরী পারফরমিক্স-এর এমডি হিসাবে কাজ করেন। পরবর্তীকালে মা হওয়ার পর ছেলেকে নিয়ে দেশে ফিরে আসেন ময়ূরী। ২০০৩ থেকে ১২ সাল পর্যন্ত আমেরিকাকে ছিলেন তিনি। কাজের প্রয়োজনে গুরুগ্রাম, বেঙ্গালুরু

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ময়ূরী কঙ্গো জানিয়েছেন, ”৯এর দশকে আমি ১৬টি ছবিতে অভিনয় করেছি। তবে সেই সময়টা বলিউডে নায়িকাদের জন্য খুববেশি ভালো কাজের জায়গা ছিল না।

সেই গাছ ধরে নায়িকাদের নাচতে হত। তাই অভিনয়ের পাশাপাশি চিত্রনাট্য লেখা ডকুমেন্টারি বানানোর কাজও করেছি। এমনকি টেলিভিশনেও কাজ করেছি। তারপর আমেরিকাতে চলে যাওয়ার পর ফের পড়াশোনা শুরু করি।

বর্তমানে কাজের জগতেও আমাকে বারবার এই একই প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়। যে আমি কেন অভিনয় ছাড়লাম। এই ইন্ডাস্ট্রিতে আবার অনেকে মনে করেন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা আদপে ইন্টেলিজেন্ট হন না, তাই প্রতি মুহূর্তে আমাকে নিজেকে প্রমাণ করতে হয়েছে।”

ময়ূরী কঙ্গোর কথায়, ”আমার মনে হয় বলিউডে আসার আগে প্রত্যেককে পড়াশোনা শেষ করেই আসা উচিত, বিশেষ করে অভিনেত্রীদের। কারণ, গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডটা খুব বেশি হলে ১০ বছরের, তারপর নতুন কাজের জন্যও নিজেকে তৈরি রাখা উচিত।

মতিহার বার্তা ডট কম ০৫ এপ্রিল ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *