শিরোনাম :
চিরবিদায় নিলেন গজ়ল শিল্পী পঙ্কজ উধাস বাঘায় ফেনসিডিল-সহ গ্রেফতার- ৩ রাজশাহী এডিটরস ফোরামের সভাপতি লিয়াকত সম্পাদক অপু সিঙ্গাপুরের স্কুল থেকে পড়াশোনা শেষ হওয়ার আগেই তাড়িয়ে দেওয়া হয় কাজল-কন্যা নিসাকে! বচ্চনদের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছে না ঐশ্বর্যার, এ বার আরাধ্যাকে নিয়ে মুখ খুললেন নব্যা ইউক্রেন যুদ্ধের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে হামলার তীব্রতা বাড়াল রাশিয়া, নিশানায় ওডেসা-সহ বিভিন্ন শহর ইজ়রায়েলের আচরণে ক্ষুব্ধ আমেরিকা গাজ়ায় যুদ্ধের প্রতিবাদ, ওয়াশিংটনের ই‌জ়রায়েলি দূতাবাসের সামনে গায়ে আগুন, আমেরিকার সেনার ‘ভারতীয় সেনাদের নিয়ে মিথ্যা বলছেন মুইজ্জু’! এ বার প্রাক্তন মন্ত্রীর তোপের মুখে মলদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মাদক ব্যবসা : দেনাদারের বাসায় পাওনাদারের লাশ
প্যারোলের নামে বিদেশ পাঠানোর রাজনীতিতে হিসেব কষে যুক্ত হলেন রিজভী!

প্যারোলের নামে বিদেশ পাঠানোর রাজনীতিতে হিসেব কষে যুক্ত হলেন রিজভী!

মতিহার বার্তা ডেস্ক :  জামিনের বদলে প্যারোলে বেগম জিয়ার মুক্তি চান বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসার প্রসঙ্গে বিভক্ত বিএনপির চলমান দ্বন্দ্বে নতুন করে বিতর্কের খোরাক যোগালেন বিএনপির আবাসিক নেতা খ্যাত রিজভী আহমেদ। একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রের বরাতে তথ্যের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

দেশের সরকারি হাসপাতালে প্রচলিত নিয়মে বেগম জিয়ার চিকিৎসার বিপক্ষে সোমবার (০৮ এপ্রিল) মতামত দেন রিজভী। বিএনপির নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে একটি অনুষ্ঠানে রিজভী বেগম জিয়াকে প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে এমন আভাস দেন।
রিজভী বলেন, পিজি হাসপাতালে তার চিকিৎসার যথাযথ ব্যবস্থা নেই। খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি। তার উন্নত চিকিৎসা দরকার। সেজন্য বিকল্প ব্যবস্থাও রয়েছে।

এদিকে, রিজভী আহমেদের এমন বক্তব্যে দলের অভ্যন্তরে নানা রকমের গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএনপির সংস্কারপন্থী একটি সূত্র। প্যারোল ও স্থায়ী জামিন নিয়ে বিএনপিতে মাইনাস ও সুবিধা আদায়ের যে রাজনীতি হচ্ছে সেটির চূড়ান্ত সাক্ষ্য দিলেন রিজভী। তার এমন দাবিতে সেই ষড়যন্ত্রের রাজনীতির আসল রূপ প্রকাশিত হয়েছে বলেও মনে করছে বিএনপির সংস্কারপন্থীদের একটি অংশ। সংস্কারপন্থী সূত্রটির মতে, রিজভী যে, কৌশলে চিকিৎসার নামে বেগম জিয়াকে বিদেশে পাঠিয়ে বিএনপির পুরো কর্তৃত্ব নিজ হাতে নিতে চান, সেটি তার বক্তব্য স্পষ্ট করেছে। কারণ মির্জা ফখরুল মহাসচিব হলেও পুরো বিএনপির কার্যক্রম ও কমিটি অনুমোদনের পেছনের কারিগর রিজভী আহমেদ। তার গ্রিন সিগন্যাল ছাড়া বিএনপি কোন কর্মসূচি দিতে পারে না। বেগম জিয়াকে বিদেশে পাঠিয়ে দিতে পারলে কার্যত বিএনপির পুরো দায়িত্ব তিনি নিতে পারবেন। আর সেজন্যই চিকিৎসার রাজনীতিতে হিসেব-নিকেশ কষছেন তিনি।

অন্য দিকে বিএনপির নয়াপল্টন পার্টি অফিসের একটি সূত্র বলছে, রিজভী আহমেদ দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির দাফতরিক দায়িত্ব সামলিয়ে একটি আলাদা সমর্থক গোষ্ঠী গঠন করতে সমর্থ হয়েছেন। তাদের ভরসায় বিএনপি পুনর্গঠনে তিনি এমন আভাস দিয়েছেন বলেও সূত্রটি জানিয়েছেন।

এদিকে বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে দুটি পক্ষ তৈরি হওয়ায় বিভ্রান্তিতে পড়েছে তৃণমূলসহ বিভিন্ন পর্যায়ের বিএনপি নেতারা। বেগম জিয়াকে কেন্দ্র করে এমন সিদ্ধান্তহীনতা সৃষ্টি হওয়ায় ক্ষোভও বিরাজ করছে তাদের মনে বলেও জানা গেছে। সূত্র: বাংলা নিউজ ব্যাংক

মতিহার বার্তা ডট কম – ১১ এপ্রিল, ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply