শিরোনাম :
রাজশাহীতে বালু মজুদ করতে ১০ একর জমির কাঁচা ধান সাবাড় বিশ্বের দীর্ঘতম গাড়িতে রয়েছে সুইমিং পুল, হেলিপ্যাডও ছুটির দিনে হেঁশেলে খুব বেশি সময় কাটাতে চান না? রবিবারে পেটপুজো হোক তেহারি দিয়েই দাম দিয়ে ছেঁড়া, রংচটা জিন্‌স কিনবেন কেন? উপায় জানা থাকলে নিজেই বানিয়ে ফেলতে পারেন উন্মুক্ত বক্ষখাঁজ, খোলামেলা পিঠ, ভূমির মতো ব্লাউজ় পরেই ভিড়ের মাঝে নজরে আসতে পারেন আপনিও স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য বাড়িতেই স্ক্রাব তৈরি করে ফেলতে পারেন, কিন্তু কতটা চালের গুঁড়ো দেবেন? গরমে শরীর তো ঠান্ডা করবেই সঙ্গে ত্বকেরও যত্ন নেবে বেলের পানা, কী ভাবে বানাবেন? গাজ়া এবং ইরানে হামলা চালাতে ইজ়রায়েলকে ফের ৮ হাজার কোটি টাকার অস্ত্রসাহায্য আমেরিকার! ইজ়রায়েলকে জবাব দিতে সর্বোচ্চ নেতার ফতোয়ার কথাও ভুলতে চায় ইরান, এ বার কি পরমাণু যুদ্ধ? দিনাজপুরে ড্রাম ট্রাকসহ ১০০ কেজি গাঁজা জব্দ, গ্রেপ্তার ৩
সংসদে না যাওয়ায় ফখরুলের কাছে ব্যাখ্যা চাইলেন গয়েশ্বর!

সংসদে না যাওয়ায় ফখরুলের কাছে ব্যাখ্যা চাইলেন গয়েশ্বর!

মতিহার বার্তা ডেস্ক : নানা নাটকীয়তার পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী বিএনপির সংসদ সদস্যরা শপথ নিয়েছেন। তবে শপথ নেননি দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শপথ গ্রহণের মেয়াদ শেষ হওয়ায় তার আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। জানা গেছে, দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে শপথ না নেয়ায় বিভিন্ন মহলের নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে মির্জা ফখরুলকে।

এরই ধারাবাহিকতায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, সবাই পার্লামেন্টে গেলেও মহাসচিব কেন গেলেন না? এটা আমার কাছেও খটকা লাগছে! দলের সিদ্ধান্তে সবাই গেলে মহাসচিব যাবেন না কেন? আলাদা কারো ভালো থাকা বা আলাদা করে কারো কাছে হিরো হওয়ার সুযোগ বিএনপিতে নেই, এটি হয়ত ভুলে গেছেন মির্জা ফখরুল। তিনি কেন সংসদে যোগ দিলেন না, নিশ্চয়ই সে বিষয়ে ব্যাখ্যা দেবেন।

শুক্রবার (৩ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন অভিযোগ করেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

বিএনপির মধ্যে সমন্বয় নেই দাবি করে গয়েশ্বর বলেন, আমাদের পাঁচজন গেছেন পার্লামেন্টে। তারা বলেছেন-নেত্রীর কথা, দেশের কথা বলতেই তারা সংসদে গেছেন। কেউ কেউ বলেছেন, জনগণের চাপে তারা সংসদে যাচ্ছেন। আবার কেউ কেউ বেকুবের মতো বলছে, সরকারের চাপ। জনগণের চাপ সত্য নাকি সরকারের চাপ? আমরা এলোমেলো কথা বলে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছি। অর্থাৎ যারা সংসদে গেছেন এবং যারা সংসদে না গিয়ে নিজেকে হিরো প্রমাণ করতে চেয়েছেন তারা উভয়ই বিএনপিকে নিয়ে খেলছে বলে আমার সন্দেহ হয়।

এদিকে বিএনপির সমন্বয়হীনতা এবং আওয়ামী লীগের ঐক্যের তুলনামূলক বিশ্লেষণ করে গয়েশ্বর বলেন, আওয়ামী লীগ আর বিএনপির মধ্যে বিস্তর পার্থক্য আছে। হাসিনা যা বলেন, দলটির নেতা-কর্মীরাও একই কথা বলেন। কিন্তু আমরা একই বিষয়ে একেকজন একেক কথা বলি। অর্থাৎ আমাদের মধ্যে চিন্তা-ভাবনার সমন্বয়ের ব্যাপক অভাব রয়েছে। দলে প্রভাব বাড়াতে আমরা যে যার মতো কথা বলে নেতা-কর্মী ও জনগণকে বিভ্রান্ত করে দলের ক্ষতি করছি। অথচ কেউ ভুল স্বীকার করছি না।সূত্র: বাংলা নিউজ ব্যাংক

মতিহার বার্তা ডট কম – ০৫ মে, ২০১৯

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply